পরকীয়ার খরচ মেটাতে পুলিশ সেজে যুগলের চাঁদাবাজি

২১ নভেম্বর ২০১৯


পরকীয়ার খরচ মেটাতে পুলিশ সেজে যুগলের চাঁদাবাজি

প্রেমের খরচ মেটাতে পুলিশ কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি করতেন এক যুগল। এমন ঘটনায় সেই জুটিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভারতের পশ্চিমবঙ্গে এই ঘটনা ঘটে।মঙ্গলবার সংবাদ প্রতিদিন জানায়, পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয়ে দোকান থেকে চাঁদা আদায় করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছে এই জুটি। গ্রেপ্তারকৃতরা বারুইপুর থানার মদারাটের বাসিন্দা সায়নী ও তার প্রেমিক দীপ। জানা যায়, স্বামীর সঙ্গে ডিভোর্সের মামলা চলছে সায়নীর। দু’জনে আলাদা থাকেন। এর মধ্যে স্থানীয় যুবক দীপের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

জানা যায়, সায়নীর মেয়ে বারুইপুরের একটি নামকরা ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়ে। স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক না থাকলেও বিলাসবহুল জীবনযাপনে অভ্যস্ত তিনি। প্রেমিক দীপকে নিয়ে বেশ কয়েকবার প্রমোদভ্রমণেও গিয়েছেন তিনি। নিজেদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও ছিল বলে পুলিশি জেরায় স্বীকার করেছে এই জুটি।

বিলাসবহুল জীবনযাপন ও প্রেমের খরচ জোগাতে চাঁদাবাজিতে নামেন সায়নী-দীপ। মোটরসাইকেলে করে দুজনে এলাকায় ঘুরে বেড়াতেন। দীপ পরিচয় দিতেন, তিনি পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগে কাজ করেন। সায়নীর স্কুইটিতেও লাগানো হয় পুলিশের স্টিকার। নারী পুলিশ কর্মকর্তার ছদ্মবেশ নিয়ে ঘুরে বেড়াতেন দোকানে দোকানে।

চাঁদাবাজি করতে গিয়ে এক দোকানির সন্দেহ হলে হাতেনাতে ধরা পড়েন এই জুটি।  পরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয় তাদের। সায়নীর বিরুদ্ধে এক ব্যক্তির কাছ থেকে স্বর্ণালংকার চুরির অভিযোগও আছে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে।