সরকারকে দ্রুত সরে গিয়ে নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান ড. কামালের

৩১ অক্টোবর ২০১৯


সরকারকে দ্রুত সরে গিয়ে নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান ড. কামালের

ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও আমাদের সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলতে হয়। আগের রাতের ভোটে নির্বাচিত হয়ে তারা যদি ভাব করে তারা ক্ষমতার মালিক। তাহলে তাদেরকেও (সরকার) থাকতে দেয়া হবে না। সরকারকে দ্রুত সরে গিয়ে নির্বাচন দেওয়ার আহ্বানও জানান তিনি। বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সুপ্রিমকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় গণফোরাম সভাপতি এসব কথা বলেন।

তানা বলেন, এবার ইতিবাচক আন্দোলন হবে এবং কেউ শক্তি দিয়ে সেই আন্দোলন থামাতে পারবে না। ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘জনগণ হবে ক্ষমতার মালিক। সরকার চালাবে যারা, তারা প্রকৃত অর্থে জনগণের দ্বারা নির্বাচিত হবে। সকল স্তরে জেলা থেকে গ্রাম পর্যন্ত যারাই নির্বাচিত হবেন, তারা ক্ষমতা প্রয়োগ করবে এবং জনগণের কাছে দায়ী থাকবেন। আপনারা পরীক্ষা করে দেখতে পারেন যে, এ বিষয়ে জনগনের মধ্যে ঐক্যমত আছে। এরকম অসাধারণ ঐক্যের মাধ্যমেই আমরা একাত্তর সালে অসম্ভবকে সম্ভব করে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেছিলাম। এই স্বাধীনতাকে অর্থপূর্ণ করতে হলে এই সময়ের মধেই বাকিটুকু আমাদেরকে করে যেতে হবে।’

ড. কামাল বলেন, ‘আমি তো বলি যে, ৫০ বছর সম্পন্ন হওয়ার আগেই আমরা সংগঠিত হই। আন্দোলনের মধ্য দিয়ে শক্তিশালী হই। যে আন্দোলন হবে ইতিবাচক; আন্দোলন হবে শহিদদের স্বপ্ন বাস্তবায়িত করা; আন্দোলন হবে জনগণের মালিকানা প্রতিষ্ঠা করা। এই ধরনের আন্দোলনকে কেউ শক্তি দিয়ে থামাতে পারবে না; ধবংস করতে পারবে না।’

ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আপনারা একটা জিনিস দেখবেন, যখন জনগণের ঐক্যমত হয়েছে, সেই ঐক্যমতের কাছে কোনো শক্তি দাঁড়াতে পারেনি। বন্দুক নিয়ে, কামান নিয়ে, কোনো কিছু নিয়ে দাঁড়াতে পারেনি। বাঙালিরা যখন ঐক্যমতে আসে সেই শক্তি হলো পৃথিবীর বড় শক্তি। সেই শক্তির কাছাকাছি অলরেডি আমরা এসে গেছি। আসুন, আমাদের দেশের ৫০ বছর পূর্তির আগেই জনগণের স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমরা সংগঠিত হই। আমরা এটা সবাই মিলে করি প্রত্যেক জেলায়, প্রত্যেক গ্রামে, প্রত্যেক পাড়ায়, প্রত্যেক মহল্লায়। ইনশাল্লাহ আমাদের যে আকাঙ্ক্ষা অবশ্য অর্জন করব, আমাদের করতে হবে।’

জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের সভাপতিত্বে সভায় নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া, বিকল্পধারার সভাপতি অধ্যাপক ড. নুরুল আমিন ব্যাপারী, জেএসডির সহ-সভাপতি তানিয়া রব প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।