কারাগারের সাধারণ বন্দী সেলে সম্রাট

৭ অক্টোবর ২০১৯


কারাগারের সাধারণ বন্দী সেলে সম্রাট

অনেক গুঞ্জন শেষে অবশেষে গ্রেপ্তার হয়েছেন যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদ্য বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট।  কার্যালয়ে ক্যাঙারুর চামড়া রাখার দায়ে তাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ রোববার রাত সোয়া আটটার দিকে তাকে নেওয়া হয়েছে কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ডেপুটি জেলার জাহেদুল আলম। জাহেদুল আলম বলেন, ‘ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে সাধারণ বন্দী হিসেবে কারাগারে রাখা হয়েছে।’

এর আগে রোববার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সম্রাটের কাকরাইলের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে একটি পিস্তল, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, ইয়াবা ও দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া উদ্ধার করে র‌্যাব।  ক্যাঙারুর চামড়া সংরক্ষণের অপরাধে বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে সম্রাটকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।  

তার আগে, রোববার ভোর ৫টার দিকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রাম থেকে সম্রাটকে গ্রেপ্তার করা হয়।  তার সঙ্গে যুবলীগের আরেক নেতা আরমানকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হলে এর মূলহোতা হিসেবে নাম আসে সম্রাটের। এরপর আত্মগোপনে চলে যান সম্রাট। তাকে নিয়ে শুরু হয় নানা গুঞ্জন, কেউ কেউ দাবি করেন সম্রাট বিদেশে পাড়ি জমিয়েছেন।  এরই ধারাবাহিকতায় তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপর গতকাল শনিবার রাত থেকেই তার গ্রেপ্তারের গুঞ্জন শুরু হলেও আজ রোববার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।