ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯


ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রলীগের পর এখন যুবলীগকে সংশোধন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছাত্রলীগকে সততা ও আদর্শ নিয়ে সংযমের সঙ্গে চলার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে ছাত্রলীগের নতুন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে ২৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাতে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় ছাত্রলীগ নেতারা প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।  এ সময় শেখ হাসিনা বলেন, ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি। সমাজের সব অসঙ্গতি দূর করবো। অপরাধ, অনাচার রোধে যা যা করার করা হবে। যাকে যাকে ধরা দরকার, তাদের ধরা হবে। ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য দায়িত্ব পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে ফুল নিয়ে দেখা করতে যান।

ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সততা ও আদর্শের সঙ্গে পথ চলতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পথে চলতে না পারলে আওয়ামী লীগের সাথে কারোর রাজনীতি করার প্রয়োজন নেই। ছাত্রলীগ নিয়ে আর কোন নালিশ শুনতে চাই না। ছাত্রলীগকে সততা ও আদর্শ নিয়ে চলতে হবে। সবার মাঝে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করে সংগঠনের ইমেজ বাড়াতে হবে।’

ছাত্রলীগের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই নেতা এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পায়ে হাত দিয়ে সালাম করে প্রধানমন্ত্রীর দোয়া নেন। সংগঠন পরিচালনার জন্য দিক নির্দেশনা চান।

এ সময় তাদের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ মহানগর শাখার শীর্ষ নেতারা ছাড়াও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ২৩ জন নেতা উপস্থিত ছিলেন। ছাত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও বি এম মোজাম্মেল হকও উপস্থিত ছিলেন এ সময়।