আজমেরী ওসমানের আস্তানায় পুলিশের ব্লক রেইড, ২ সহযোগী গ্রেফতার

৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯


আজমেরী ওসমানের আস্তানায় পুলিশের ব্লক রেইড, ২ সহযোগী গ্রেফতার

নারায়নগঞ্জের আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানের ভাতিজা ও ত্বকী হত্যাকাণ্ডে আলোচিত আজমেরী ওসমানের বাসায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আজমেরী ওসমান পালিয়ে গেলেও তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নারায়নগঞ্জ শহরের আমলাপাড়ার বাচ্চু নামে এক ঠিকাদারের কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবী এবং না পেয়ে মারধর ও অফিস ভাংচুরের অভিযোগের পর এই অভিযান চালায় পুলিশ। গ্রেফতাররাকৃত হলো জেলা ছাত্রসমাজের আহবায়ক মোঃ শাহাদাৎ হোসেন রুপু (৩২) ও গলাচিপার ডিএন রোডের মোখলেসুর রহমান (৩৫)।

বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় থেকে ১টা পর্যন্ত জেলা গোয়েন্দা পুলিশ(ডিবি), ফতুল্লা মডেল থানা ও সদর মডেল থানার একাধিক টিম নগরীর আল্লামা ইকবাল রোডের আজমেরী ওসমানের বাসা ও অফিস দেওয়ান মঞ্জিলে এ অভিযান পরিচালনা করেন। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চাঁদা দাবিকে কেন্দ্র করে আমলাপাড়ায় ওই ব্যক্তিকে মারধর করে আজমেরী ওসমানের লোকজন। এবং অফিস ভাংচুর করে এছাড়া তাকে প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়। সন্ধ্যায় আজমেরী ওসমান আর তার সাঙ্গপাঙ্গদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করে বাচ্চু। ঘটনার সত্যতা পাওয়ার রাতেই আজমেরি ওসমানকে ধরতে অভিযানে নামে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-২) সাজ্জাদ রোমন জানান, চাঁদার দাবিতে আমলাপাড়ার বাসিন্দা বাচ্চুর অফিসে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় আজমেরী ওসমানের দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, আমলাপাড়ার ঠিকাদার বাচ্চুর কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে আজমেরী ওসমান ও তার সহযোগীরা। চাদা না পেয়ে তাকে মারধর ও অফিস ভাংচুর করে। তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ অভিযান চালায়। দুইজনকে আটক করা হয়েছে।