রাজশাহীতে পুলিশের ওপর শিক্ষার্থীদের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩

২৯ আগস্ট ২০১৯


রাজশাহীতে পুলিশের ওপর শিক্ষার্থীদের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ৩

রাজশাহীতে পুলিশের ওপর অস্ত্রসহ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ হামলায় পুলিশের সহকারি পরিদর্শক (এএসআই) মাইনুল ইসলাম আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মহানগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় জড়িত তিন শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে তল্লাশি চালিয়ে তাদের কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত যুবকরা হলেন, মহানগরীর কয়েরদাঁড়া এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে আমির হোসেন (২০), মহানগরীর সপুরা পবাপাড়া এলাকার রণজিৎ হালদারের ছেলে অভিজিৎ হালদার রিংকু (২৪), সাহেববাজার মাস্টারপাড়া এলাকার এমাজ উদ্দিনের ছেলে মোবারক হোসেন (১৮)।

এদের মধ্যে রিংকু রাজশাহী কলেজের বিবিএস (ডিগ্রি) প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। মোবারক টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের দশম শ্রেণীর ছাত্র ও আমির নওহাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র।

বোয়ালিয়া ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন জানান, মহানগরীর কাদিরগঞ্জ চালপট্টি এলাকায় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন এএসআই মাইনুল ইসলাম। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিন শিক্ষার্থী রিকশায় চড়ে সাহেববাজার এলাকার দিকে যাচ্ছিলেন। এসময় তাদের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় পুলিশ তাদের রিকশা থামিয়ে তল্লাশি শুরু করে।

এসময় একজন ছুরি বের করে এএসআই মাইনুলের হামলা চালিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে তাদের দায়িক্তরর কন্সটেবলরা ধরে ফেলে। তখন পুনরায় দেহ তল্লাশি করে তাদের কাছে আরো একটি পিস্তল ও ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়।

ওসি জানান, গ্রেফতারকৃত শিক্ষার্থীদের নামে থানায় অস্ত্র আইন ও দায়িক্তরত পুলিশের ওপর হামলা আইনে মামলা করে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তছাড়া তারা ছিনতাইকারী দলের সদস্য কিনা? তা জানার চেষ্টা চলছে।