মঙ্গলবার | ৩ আগস্ট ২০২১ | টরন্টো | কানাডা |

Breaking News:

  • বিদেশি প্রভাবিত প্রচারণায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে ব্যবহার করা হচ্ছে
  • গ্রিন পার্টির নেতা অনামী পলকে দল থেকে বহিস্কারের কোনো সুযোগ নেই
১ কোটি ৭৭ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন বিভিন্ন দেশকে দান করার ঘোষণা


দরিদ্র দেশগুলোকে ভ্যাকসিন পেতে সহায়তা করতে কানাডিয়ানদের অর্থ সহায়তা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে কানাডা। একই সঙ্গে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ১ কোটি ৭৭ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন বিভিন্ন দেশকে দান করারও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ১ কোটি ৭৭ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন বিভিন্ন দেশকে দান করার ঘোষণা দিয়েছে কানাডা। সোমবারের ওই ঘোষণায় দরিদ্র দেশগুলোকে ভ্যাকসিন পেতে সহায়তা করতে কানাডিয়ানদের অর্থ সহায়তা দেওয়ারও আহ্বান জানানো হয়েছে। 

প্রদেশগুলোর সঙ্গে আলোচনার পর ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রী অনীতা আনান্দ জানান, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের এই ডোজগুলো বাড়তি সরবরাহ। অ্যাস্ট্রাজেনেকার যে ভ্যাকসিন ডোজগুলো অনুদান হিসেবে দেওয়া হবে সেগুলো অগ্রিম ক্রয় চুক্তির আওতায় সরবরাহ পাবে কানাডা এবং এগুলো উৎপাদন হবে যুক্তরাষ্ট্রে। কোভ্যাক্সের মাধ্যমে নি¤œ আয়ের দেশগুলোকে এসব ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। তবে ঠিক কবে নাগাদ এগুলো দেওয়া হবে সে নিয়ে এখনও কাজ চলছে। 

অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও জনসন অ্যান্ড জনসন উৎপাদিত ভাইরাল-ভেক্টর ভ্যাকসিনের চেয়ে মডার্না ও ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি এমআরএনএ ভ্যাকসিনকেই বেশি অগ্রাধিকার দিচ্ছে ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি অন ইমিউনাইজেশন। এমনকি কেউ যদি প্রথম ডোজ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নিয়েও থাকে সেক্ষেত্রেও একই কথা বলেছে তারা।

ভাইরাল-ভেক্টর ভ্যাকসিনের কারণে বিরল কিন্তু কখনও কখনও মারাত্মক রক্ত জমাট বাধার ঝুঁকি রয়েছে। কানাডায় অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহীতা প্রতি ৬০ হাজার জনের মধ্যে একজনের ক্ষেত্রে এ সমস্যা দেখা গেছে। যেসব কানাডিয়ান প্রথম ডোজ হিসেবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোও রয়েছেন তাদের মধ্যে। 

গত মাসে অনুষ্ঠিত জি৭ সম্মেলনে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে পাওয়া ১ কোটি ৩০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। জুলাইয়ের শেষ নাগাদ কানাডা ৬ কোটি ৮০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ পেতে যাচ্ছে, প্রত্যেক নাগরিককে পূর্ণাঙ্গভাবে ভ্যাকসিনেটেড করতে যা যথেষ্ট।

সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ মডার্নার ৪ কোটি ৪০ লাখ ডোজ এবং ফাইজার-বায়োএনটেকের ৫ কোটি ১০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন কানাডায় এসে পৌঁছাবে বলে সোমবারের ঘোষণায় জানান অনীতা আনান্দ। যদিও ৩ কোটি ৮০ লাখ কানাডিয়ানকে ভ্যাকসিনেটেড করতে প্রয়োজন ৭ কোটি ৬০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন।


[email protected] Weekly Bengali Times

-->