ফাইভজির ছোঁয়ায় বদলে যাবে জীবন
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বিশ্বের অনেক দেশই অনেক আগে থেকেই ফাইভজি নিয়ে কাজ শুরু করেছে, তবে আমজনতার কাছে তা পৌঁছাবে আরও তিন থেকে চার বছর পর। এদিকে বাংলাদেশে সবেমাত্র তোড়জোড় চলছে ফোরজি নিয়ে। যুক্তরাজ্যের কিংস কলেজ লন্ডনের একটি গবেষক দল ফাইভজির উপযোগী অত্যাধুনিক কিছু অ্যাপ তৈরি করছেন। সেখানে তারা চিকিৎসা সেবা থেকে শুরু করে গানের জগতেও আমূল পরিবর্তন আনার কাজ করছেন।

তারা এমন একটি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছেন যা ইন্টারনেটের মাধ্যমে শারীরিক দক্ষতা ট্রান্সফার করবে। এই প্রযুক্তিকে বলা হচ্ছে ইন্টারনেট অব স্কিলস। যেমন একজন সার্জন ভার্চুয়াল রিয়েলিটির সরঞ্জাম ও হ্যাপটিক গ্লাভস পরে রোগী থেকে দূরে অবস্থান করেও প্রেসার মাপতে পারবেন। আগেও রিমোর্ট সার্জারি সম্ভব হয়েছে। কিন্তু এখন ফাইভজির কল্যাণে ডিভাইসে কোনো রকম ল্যাগ ছাড়াই তা সম্ভব হবে। গ্লাভসের মাধ্যমেই চিকিৎসকরা তাৎক্ষণিক ফিডব্যাক পেয়ে যাবেন।

পরবর্তী প্রজন্মের এই ওয়্যারলেস প্রযুক্তি দৈনন্দিন জীবন যাত্রাকে অনেকখানিই পাল্টে দেবে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ি চালানো, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি, স্মার্ট সিটি ও নেটওয়ার্ক যুক্ত রোবট চালাতে ভূমিকা রাখবে ফাইভজি। এর বাইরেও অভাবনীয় কিছু কাজে ব্যবহৃত হবে ফাইভজির গতি।

 

০৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১০:০৯:১৪