অপরাধী ধরতে শিশু পর্নোসাইট চালাত অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
অপরাধী ধরতে প্রায় এক বছর ধরে ‘চাইল্ডস প্লে' নামের একটি জনপ্রিয় শিশু পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট চালিয়েছে অষ্ট্রেলিয়ান পুলিশ৷ নরওয়ের এক সংবাদপত্রের অনুসন্ধানে উঠে এসেছে এই তথ্য৷ ভারডেনস গং বা ভিজি নামে পরিচিত নরওয়ের অন্যতম এই ট্যাবলয়েড পত্রিকা বেশ কিছুদিন ধরেই এ ধরনের স্পর্শকাতর কার্যক্রমের উপর অনুসন্ধান চালিয়ে আসছে৷ এরই অংশ হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার পুলিশের প্রায় ১১ মাস ধরে শিশু পর্নোসাইট চালানোর তথ্যটি প্রকাশিত হয়৷ ভিজির অনুসন্ধানে উঠে আসে, এ বছরের সেপ্টেম্বরে সাইটটি বন্ধ করে দেয়ার আগ পর্যন্ত এতে পুলিশের পক্ষ থেকে শিশুদের অপব্যবহার ও ধর্ষণসহ চরম অবমাননাকরপর্নোগ্রাফি আপলোড ও শেয়ার করা হয়েছে৷ গতবছর ‘চাইল্ডস প্লে' নামের এই সাইটের মূল চালক যুক্তরাষ্ট্র থেকে গ্রেফতারের পর কুইন্সল্যান্ড পুলিশের ‘টাস্কফোর্স আর্গস' এই ওয়েবসাইটটি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়৷ যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধী ধরতে এ ধরনের কার্যক্রমের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হলেও অস্ট্রেলিয়ায় এর উপর আইনগত বাধা নেই৷

এর আগে মার্কিন পুলিশ ‘গিফটবক্স' নামের আরেকটি ফোরামে ‘চাইল্ডস প্লে' সাইটের মূল চালক ও তার সহযোগীর যোগাযোগের সূত্র ধরে তাদের গ্রেফতার করে৷ পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধী ধরতে অপরাধমূলক কার্যক্রম নিষিদ্ধ করার পর ‘চাইল্ডস প্লে' সাইটের নিয়ন্ত্রণ নেয় অস্ট্রেলিয়ান পুলিশ৷

বর্তমানে এ সাইটে ১০ লাখেরও বেশি মানুষের প্রোফাইল রয়েছে, যার মধ্যে চার হাজারেরও বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারী ও অন্তত ১০০ জন রয়েছে যারা নিজেরাই শিশু ধর্ষণ করে তা রেকর্ড করে বা অন্য কারো দ্বারা শিশু ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে সেগুলো আপলোড করে৷

যদিও অস্ট্রেলিয়ার পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, শিশু যৌন নিপীড়ণকারীদের ধরতে তাদের এ কার্যক্রম যৌক্তিক, এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে উল্লেখযোগ্য কোনো সাফল্যের খবর পাওয়া যায়নি৷ অন্যদিকে, ‘হানি ট্র্যাপ' হিসেবে এ সাইটে অসংখ্যশিশু নিপীড়ণমূলক ছবি ও ভিডিও পোষ্ট করেছিল আর্গস৷

ভিজি-র অনুসন্ধান অনুযায়ী, সারা বিশ্বে অন্তত ৬০ থেকে ৮০ জন মানুষের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা শুরুর প্রস্তুতি চলছে৷ এ অনুসন্ধানের সূত্র ধরে ক্যানাডায় এক ডজনেরও বেশি শিশুকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে৷ -ডয়েচেভেলে

১১ অক্টোবর, ২০১৭ ১১:০২:৫০