প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাইলেন কলসিন্দুরের মেয়েরা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
বাংলাদেশ নারী জাতীয় ফুটবল দলের তারকা মারিয়া মান্দা (বাঁয়ে) ও সানজিদা আক্তার


কলসিন্দুর উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল অ্যান্ড কলেজে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে পুড়ে গেছে নারী ফুটবলারদের অর্জিত মেডেল-সনদ। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সেই স্কুল থেকেই ওঠে আসা বাংলাদেশ নারী জাতীয় ফুটবলের দুই তারকা সানজিদা আক্তার ও মারিয়া মান্দা। ন্যক্কারজনক এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতের শাস্তির দাবি তাদের। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার চেয়েছেন সানজিদা-মারিয়ারা।

দেশের নারী ফুটবলের সূতিকাগার হিসেবে পরিচিত ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার কলসিন্দুর উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ। মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানটির অফিসকক্ষে আগুন লাগিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। যাতে পুড়ে যায় বিভিন্ন সময় ফুটবলে মেয়েদের অর্জিত মেডেল-সনদ। পুড়ে যাওয়ার তালিকায় বয়স ভিত্তিক জাতীয় দলের তারকা শামসুন্নাহার জুনিয়র, সাজেদা আক্তার, রোজিনাদের মেডেল-সনদও ছিল।

সিনিয়র জাতীয় দলের সদস্য সানজিদা, মারিয়ারা নিজেদের সনদ ও মেডেল আগেই স্কুল থেকে নিয়ে নিয়েছিলেন। তবে জুনিয়রদের অর্জিত মূল্যবান মেডেল-সনদ পুড়ে যাওয়ায় যারপরনাই ব্যথিত দুজন।

জাতীয় দলের ক্যাম্পে থাকা ফরোয়ার্ড সানজিদা আক্তার তাই জোড় দাবি জানালেন জড়িতদের বিচারের। এই তারকা বলেন, ‘‘সকালে নাশতার করার সময় স্যারের কাছে (কোচ-গোলাম রব্বানী ছোটন) শুনেছি এ খবর। খুব খারাপ লাগছে। আমরা ওই স্কুলে পড়েছি। ওই স্কুলের মাঠে অনেক খেলেছি। যে ব্যক্তি এমন জঘন্য কাজ করেছে তাকে শনাক্ত করে যেন শাস্তি দেওয়া হয়।’’

মিডফিল্ডার মারিয়া মান্দার দাবি, ‘‘আমার নিজের মেডেল-সনদ নিয়ে নিয়েছিলাম। কিন্তু দলীয়ভাবে অর্জন করা ট্রফিগুলো স্কুলেই ছিল। শোনার পর থেকে অনেক মন খারাপ। আমরা চাই এর সুষ্ঠু বিচার হোক।’’

মারিয়া প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার দাবি করে বলেন, ‘‘এ সব ঘটনা ঘটলে আমাদের জন্য সমস্যা। এমন হলে তো আমরা এগোতে পারব না। যারা অপরাধ করেছে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত। আমরা এর নিন্দা জানাই। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা হলে আমরা দোষীদের শাস্তি দিতে বলব।’’



 


১৫ মে, ২০১৯ ২০:৫৯:১৭