গোল উৎসব করে কোয়ার্টারে বার্সা
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
আবারও দুর্দান্ত রূপে নিজেকে মেলে ধরলেন লিওনেল মেসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে নিজে করলেন জোড়া গোল, সঙ্গে আরও দুটি করলেন অ্যাসিস্ট। অধিনায়কের এমন জাদুকরী পারফরম্যান্সে লিওঁকে উড়িয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে কোনও অসুবিধাই হলো না বার্সেলোনার। সেইসঙ্গে বার্সাকে টানা ১২বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে তুললেন এই আর্জেন্টাইন তারকা। বুধবার রাতে কাম্প নউয়ে শেষ ষোলোর ফিরতি পর্বে ফরাসি ক্লাব লিওঁকে ৫-১ গোলে হারায় এরনেস্তো ভালভেরদের দল। এর আগে লিওঁর ঘরের মাঠে গোলশূন্য ড্র করে ফিরেছিল কাতালান জায়ান্টরা৷ ম্যাচের ১৬তম মিনিটে শট নিতে উদ্যত সুয়ারেজকে ঠেকাতে গিয়ে ফাউল করে বসেন লিওঁ গোলরক্ষক। রেফারি সরাসরি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। ফলে ম্যাচের ১৮তম মিনিটে দারুণ এক চিপে লোপেসকে বোকা বানিয়ে চলতি আসরে নিজের ৭ম গোল করেন মেসি। এর পর ম্যাচের ৩১তম মিনিটে সুয়ারেজে পাস থেকে গোল করে বার্সার ব্যবধান ২-০ করেন ফিলিপে কৌতিনিহো৷ প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় কাতালান ক্লাবের অনুকূলে ২-০ গোলে৷

বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে লুকাস তুসার্তের গোলে লিওঁ ম্যাচে ছড়ায় উত্তেজনা। কিন্তু ম্যাচের ৭৮তম মিনিটে সার্জিও বাসকোয়েটসের পাস থেকে গোল করে ব্যবধান পুনরায় বাড়িয়ে ৩-১ করেন মেসি৷

ম্যাচের ৮১তম মিনিটে পিকেকে গোলের পাস বাড়াল এলএস টেন এবং পিকো গোল করে স্কোরলাইন ৪-১ করেন৷ এক মৌসুমে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত গোলের নিরিখে পিকে ছুঁয়ে ফেলেন নিজের অতীতের রেকর্ড৷ ২০১৪-১৫ মৌসুমে মোট ৭টি গোল করেছিলেন তিনি৷ এবার লা লিগায় ৪টি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দু’টি ও সুপার কাপে একটি গোল আসা পিকের পা থেকে৷

আর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে মেসি গোলের বল বাড়িয়ে দেন দেম্বেলেকে৷ লিওঁর জালে বল জড়িয়ে দেম্বেলে বার্সার হয়ে পাঁচ গোলের বৃত্ত পূর্ণ করেন৷ ম্যাচের চূড়ান্ত স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৫-১৷ দু’টি গোল করে এবং দু’টি অ্যাসিস্ট করে ম্যাচের সেরা হন মেসি৷ এই নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে টানা ৩০ ম্যাচ অপরাজিত (২৭ জয়, তিন ড্র) থাকলো কাতালান ক্লাবটি, যা প্রতিযোগিতাটির রেকর্ড। সূত্র: লাইভস্কোর ডটকম

১৪ মার্চ, ২০১৯ ১০:২১:৫৩