শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে রংপুরকে হারিয়ে ঢাকার জয়
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


কায়রন পোলার্ডের দ্রুততম ফিফটিতে রানের পাহাড় গড়েছিলো ঢাকা ডায়নামাইটস। বল হাতে নিয়ে অ্যালিস ইসলামের হাট্টিকের মাধ্যমে শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে রংপুরকে ২ রানে হারিয়ে জয় তুলে নিলো সাকিবের ঢাকা ডায়নামাইটস। শুরুতে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে রংপুরকে ১৮৪ রানের টার্গেট দিয়েছে ঢাকা। জয়ের লক্ষে মাঠে নামে এমপি মাশরাফির রংপুর। তবে শেষ রক্ষা হলো না তাদের। ২০ ওভার লড়াই সবকটি উইকেট হারিয়ে দলীয় রান করে ১৮১ রান।

শুরুতে টসে হেরে ব্যাটিং পেয়ে বেজায় খুশি হয়েছিলেন ঢাকা ডায়নামাইটস অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। কারণ হোম অব ক্রিকেটে অনেক দল বড় রানের দেখা না পেলেও ঢাকার ক্রিকেটারদের ব্যাটে বড় রান আসছে নিয়মিতই। ইনিংসের শেষেও সাকিবের হাসি লেগে রইল তার মুখে।

আগের দুই ম্যাচে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ঢাকা ডায়নামাইটসের ক্যারিবীয় দানব কাইরন পোলার্ড। কিন্তু রংপুরের বিপক্ষে তার ব্যাটে যেন স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটলো। শুরুটা কিছুটা দেখেশুনে করলেও খোলস ছেড়ে বের হতে বেশি সময় নেননি এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান।

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে নেমে ঢাকা ডায়নামাইটসকে চেপে ধরে রংপুর রাইডার্স। দলীয় ৯ রানে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা হজরতুল্লাহ জাজাইকে (১) বোল্ড করে দেন সোহাগ গাজী। ১০ রানের ব্যবধানে দুই বাউন্ডারি দিয়ে রানের খাতা খোলা অপর ওপেনার সুনিল নারাইনকে রবি বোপারার ক্যাচে পরিণত করেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। ১৯ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় ঢাকা। ৮ বলে ২ চচর ১ ছক্কায় ১৮ রানের ঝড় তুলেছিলেন রনি তালুকদার। তাকে হাওয়েলের তালুবন্দি করেন সোহাগ গাজী।

মিজানুর রহমানকে (১৫) হাওয়েল এলবিডাব্লিউ করে দেন। এরপরেই অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের সঙ্গে জুটি গড়ে বিধ্বংসী ব্যাটিং শুরু করেন কায়রন পোলার্ড। ২০ বলে হাফ-সেঞ্চুরি পূরণ করেন এই ক্যারিবীয়। ২৬ বলে ৫ বাউন্ডারি এবং ৪ ওভার বাউন্ডারিতে ৬২ রান করা পোলার্ডকে থামান হাওয়েল। ৩৭ বলে ৩৬ করা সাকিব শিকার হন ফরহাদ রেজার।

শফিউলের শিকার হওয়ার আগে ১৩ বলের ২৩ রানের ঝড় তোলেন আরেক ক্যারিবিয়ান আন্দ্রে রাসেল। পরের দুই ব্যাটসম্যান শুভাগত হোম (৩) এবং নুরুল হাসানও (৪) শিকার হন শফিউলের। এই পেসার তুলে নেন ৩ উইকেট। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ঢাকার সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৮৩ রান।


১১ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৮:১৭:৪৮