‘মি-টু’ তদন্তে ছাড় পেলেন জোহরি
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
যৌন হেনস্থায় অভিযুক্ত চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) রাহুল জোহরিকে বেকসুর ঘোষণা করল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার যে অভিযোগ করা হয়েছিল, তা ‘অতিরঞ্জিত ও ক্ষতিকর’ মন্তব্য করে তাকে ‘ক্লিনচিট’ দিল বোর্ড।

জোহরির বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠার পরে তদন্তের জন্য তিন সদস্যের একটি প্যানেল গড়ে আদালত নিযুক্ত কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স (সিওএ)। তারা এই অভিযোগের সমর্থনে কোনও অকাট্য প্রমাণ পাননি বলে জানিয়েছেন। তবে প্যানেলের দুই সদস্য তাকে বেকসুর বললেও একজন তাকে পুরোপুরি ছাড় দিতে রাজি হননি। 

ছ’সপ্তাহ বোর্ডের দফতরে ঢুকতে পারেননি তিনি। তবে বুধবার থেকেই ফের কাজ শুরু করতে পেরে খুশি জোহরি। বলেন, ‘গত ছ’সপ্তাহ আমার জীবনের সব চেয়ে কঠিন সময় ছিল। এই দুঃসময়টা পেরিয়ে আসা আমার কাছে স্বস্তিকর।’ তবে জোহরির এই ভবিষ্যৎ নির্ধারণ নিয়ে সিওএ দু’ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছিল বলে জানা গেছে। সিওএ প্রধান বিনোদ রাই জোহরিকে অভিযোগমুক্ত করার পক্ষে থাকলেও আর এক সদস্য ডায়না এডুলজি এতে রাজি ছিলেন না বলে জানা গেছে। সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরেও তিনি বলেন, ‘এখনও বলছি, জোহরি এই পদে বসার যোগ্য নয়।’ বরাবরই বোর্ড সিইও-র পদত্যাগ দাবি করেছিলেন তিনি। প্যানেলের এক সদস্য জোহরিকে লিঙ্গ বৈষম্যের স্পর্শকাতরতা বিষয়ে কাউন্সেলিং নেওয়ার পরামর্শও দেন।

যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে প্যানেলের প্রধান অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি রাকেশ শর্মার মত, ‘অভিযোগকারীরা তাদের বক্তব্য ঠিকমতো পেশ করতে পারেননি। রাহুল জোহরির ক্ষতি করার উদ্দেশ্য নিয়ে তার বিরুদ্ধে অতিরঞ্জিত অভিযোগ আনা হয়েছে। তাকে বোর্ড থেকে বিতাড়িত করার জন্য যা তৈরি করা হয়েছিল।’  সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

২২ নভেম্বর, ২০১৮ ০৯:২৭:৩৯