ভারতের বিপক্ষে পাত্তাই পেলো না মাশরাফিবাহিনী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
এশিয়া কাপের সুপার ফোরের শুরুটা যাচ্ছেতাই হল বাংলাদেশের। ভারতের বিপক্ষে পাত্তাই পেলো না মাশরাফিবাহিনী। ৭ উইকেটের বড় জয় তুলে নিল ভারত।

এমনিতেই ব্যাটসম্যানদের দৃষ্টিকটু পারফর্ম্যান্সে মামুলি টার্গেট দাঁড় করিয়েছে। তারওপর বোলাররাও জ্বলে উঠতে  পারেননি। ফলাফল প্রত্যাশিতই, ৮২ বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নিয়েছে ভারত। শুরু থেকেই বিস্ফোরক ছিলেন শিখর ধাওয়ান এবং রোহিত শর্মা। ৪০ রানে ধাওয়ানকে এলবিডব্লিাউ'র ফাঁদে ফেলতে সক্ষম হন সাকিব আল হাসান। এরপর আম্বাতি রাইডুকে (১৩) মুশফিকের ক্যাচে পরিণত করেন রুবেল। এমএস ধোনিকে নিয়ে নির্বিঘ্নেই জয়ের পথে যাচ্ছিলেন রোহিত শর্মা। তবে শেষ বেলায় মাশরাফির বলে বড় শট খেলতে গিয়ে সীমানায় মিঠুনের হাতে ক্যাচ দেন ধোনি (৩৩)।

দিনেশ কার্তীককে নিয়ে বাকি পথটুকু সহজেই পার করেন ৮৩ রানে রানে অপরাজিত রহিত। এর আগে দুবাইতে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৭৩ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। শুরুতেই দুই ওপেনার লিটন দাস (৭) এবং নাজমুল হোসেন শান্তকে (৭) হারিয়ে বিপাকে পড়ে। এরপর ১৭ রানে সাকিব আল হাসানকে তুলে নেন জাদেজা। চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া বাংলাদেশ আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। ৯ রানে মোহাম্মদ মিঠুন ফিরে গেলে বিপদ আরো ঘনীভূত হয়। ৬৫ রানে ৫ উইকেট হারানো দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন মাহমুদুল্লাহ। তাকে সঙ্গ দেন মোসাদ্দেক। তবে আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের বলি হলেন হয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মাহমুদুল্লাহকে। ৩৩ তম ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারের ভেতরে ঢোকা বল মাহমুদুল্লাহর ব্যাটে লেগে প্যাডে লাগে। কিন্তু, আম্পায়ার আঙুল তুলে জানিয়ে দেন সিদ্ধান্ত। নিশ্চিত মাহমুদুল্লাহ রিভিউ নিতে চাইলেন। কিন্তু সে উপায় ছিল না। আগেই রিভিউ নষ্ট করেছেন মোহাম্মদ মিঠুন। ফলে নিরুপায় মাহমুদুল্লাহকে মাঠ ছাড়তে হয় ৫১ বলে ২৫ রান করে।

এরপর স্কোরে আর কোন রান যোগ না করেই ফিরে যান মন্থর ইনিংস খেলা মোসাদ্দেক হোসেন। ৪৩ বলে তিনি করেন ১২। তবে পুরো ইনিংসের ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ দেন মেহেদী মিরাজ। ৫০ বলে তিনি খেলেন ৪২ রানের দৃষ্টিনন্দন ইনিংস। অধিনায়ক মাশরাফির ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। শেষ পর্যন্ত ৫ বল বাকি থাকতে বাংলাদেশ অলআউট হয় ১৭৩ রানে।

 

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০৬:১৭:৪৯