দেশের ক্রিকেটের ‘ব্যাডবয়’ সাব্বির
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ক্রিকেটার সাব্বির রহমান
ভারতের টেনিস সেনসেশন সানিয়া মির্জাকে উত্ত্যক্ত করার অপরাধে সাব্বির রহমানকে পাঁচবছর ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করা হয়েছিল। সময় সংবাদকে এমনটাই জানিয়েছেন তখনকার সিসিডিএম চেয়ারম্যান জেএস হাসান তামিম ও তদন্ত কমিটির অন্যতম সদস্য আবু ইউসুফ মিকু। ওই ঘটনায় ২০১১-১২ মৌসুমের প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে সাব্বিরকে শোকজ করা হয়। তিনবার চিঠি দেওয়ার পর শুনানিতে অংশ নেন সাব্বির। এমনটাই বলেছেন তদন্ত কমিটির আরেক সদস্য রিপন। খবর সময় টিভি'র।

ছয় বছর আগে এশিয়া মহাদেশের টেনিস সেনসেশন সানিয়া মির্জার সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছিলেন ক্রিকেটার সাব্বির রহমান। এমন খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে আসার পর সাব্বির বিতর্ক আলোচনায় আসে। কিন্তু সেই সময় আনুষ্ঠানিকভাবে সাব্বিরের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগের কথা স্বীকার করেনি কেউই। তবে, এবার সময় সংবাদকে তখনকার সিসিডিএম চেয়ারম্যান ব্যাপারটি পরিষ্কার করলেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা সানিয়া মির্জাকে নিয়ে সাব্বিরের বিরুদ্ধে একটা অভিযোগ পাই। যেখানে সানিয়া মির্জার সঙ্গে সাব্বির রহমান অশোভন আচরণ করেছিল। আর ওই চিঠিতে বলেছিলাম, ৫ বছরের জন্য তাকে (সাব্বির) নিষিদ্ধ করা হবে। যেহেতু শোয়েব মালিক মোহামেডান ক্লাবে খেলেছিল। আর মোহামেডান ক্লাব দায়িত্ব নিয়ে চিঠিটা দিয়েছিল। সেই সময়ে আমরা তড়িৎ অ্যাকশনে গিয়েছিলাম। এই ঘটনার পরপরই নিয়ম অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সানিয়া মির্জার স্বামী পাকিস্তানের ক্রিকেটার শোয়েব মালিক তার ক্লাব মোহামেডানের মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ করে সিসিডিএমে।

তড়িৎ চার সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করে সিসিডিএম। দুই দফায় চিঠি দিয়েও সাব্বিরের সাড়া মেলেনি। তৃতীয় চিঠির পর শুনানিতে অংশ নেন সাব্বির। কিন্তু তার আচরণে ক্ষুব্ধ হয় তদন্ত কমিটি। সাব্বিরকে দোষী সাব্যস্ত করে ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ৫ বছরের নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করে তখনকার তদন্ত কমিটি।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা বলেন, ‘আমরা যখন তাকে নিষিদ্ধ করি,পরবর্তী মৌসুমে তিনি (সাব্বির) খেলায় অংশগ্রহণ করতে পারেন নি। আর ওই মৌসুমে আবার শোয়েব মালিক হয়-তো ভিক্টোরিয়া ক্লাবে খেলতে এসেছিলেন। তারপর ওনি (সাব্বির রহমান) শোয়েব মালিকের সঙ্গে কথা বলে বোর্ডের কাছে দরখাস্ত করেন। আর বোর্ড তখন খেলার জন্য অনুমতি দেন।’

তদন্ত কমিটির অন্য আরেকজন জানান, ‘ওই শুনানিটা ছিল আধা-ঘণ্টার মতো। ওরা যে অভিযোগটা করেছেন; সেটা কত-টা সত্য। সেই সময়ে সাব্বির রহমান তার নিরাপদ জোনে উত্তর দিয়েছিলেন।’

ক্রিকেটের ‘ব্যাডবয়’ তকমা লাগা সাব্বিরের সঙ্গে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলেও মোবাইল ফোন ধরেননি ৬ মাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হতে যাওয়া সাব্বির রহমান।

 

 

০২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২১:৫৪:৫২