বিদায়বেলায় নেইমারের পোস্ট দেখে চোখে জল ব্রাজিল ভক্তদের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
কানে হেডফোন৷ পিঠে সোনার ব্যাগ৷ এভাবেই রাশিয়ায় পা রেখেছিলেন বিশ্বজয়ের লক্ষ্যে৷ রাশিয়া ছাড়লেনও একই ভঙ্গিতে৷ কিন্তু বদলে গিয়েছে মেজাজটা৷ চোখে মুখে হতাশার ছাপ স্পষ্ট৷ কারণ এবারও খালি হাতেই দেশে ফিরতে হচ্ছে নেইমারকে৷

গত বিশ্বকাপের তুলনায় এবারের দল অনেক বেশি শক্তিশালী ছিল৷ সে কথা মেনে নিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরাও৷ তিতে জমানায় দুর্দান্ত ফর্মে ছিল পেলের দেশ৷ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সব রসদই ছিল এই দলটার মধ্যে৷ কিন্তু অঘটনের বিশ্বকাপে সবই ওলটপালট হয়ে গিয়েছে৷ সেমিফাইনালের আগেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়েছে লাতিন আমেরিকার সব দেশ৷ যাদের মধ্যে সর্বশেষ ছিল ব্রাজিল৷ ১৬ বছরের খরা এবারও কাটল না৷ আর তাই মর্মাহত দলের স্তম্ভ নেইমার৷ বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন৷ সেই সঙ্গে জানালেন নিজের মনের কথা৷

ব্রাজিলীয় পোস্টার বয় জানিয়েছেন, এটাই তাঁর ফুটবল জীবনের সবচেয়ে দুঃখের মুহূর্ত৷ ইনস্টাগ্রামের পোস্টে তিনি লেখেন, “ভীষণ কষ্ট হচ্ছে৷ কারণ আমরা জানতাম এই দল ইতিহাস তৈরি করতে পারত৷ কিন্তু এবার তা হল না৷ নতুন করে ফুটবল খেলার শক্তিটাই আর পাচ্ছি না৷ তবে আমার বিশ্বাস, ঈশ্বর যে কোনও পরিস্থিতি থেকে আবার ঘুরে দাঁড়ানোর শক্তি দেবেন৷ তাই এই পরাজয়ের মুহূর্তেও উপরওয়ালাকে ধন্যবাদ জানাই৷” এই দলের অংশ হতে পারায় গর্বিত নেইমার৷ এখনই ভেঙে পড়তে চান না৷ চান না বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখা বন্ধ করতেও৷ তাই লিখেছেন, “ষষ্ঠ বিশ্বকাপ ঘরে তোলার পথে ধাক্কা খেলাম৷ কিন্তু মাথায় ও মনে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার খিদে রয়েই গেল৷” গত বিশ্বকাপে চোটের জন্য অনেকগুলো ম্যাচ রিজার্ভ বেঞ্চেই বসে কাটিয়েছিলেন৷ এবার তাই জয়ের তাগিদটা বেশি ছিল৷ কিন্তু লক্ষ্যপূরণ হল না৷

চলতি বিশ্বকাপে তাঁর প্লে-অ্যাক্টিংই ছিল আলোচনার কেন্দ্রে৷ মাঠে তাঁর চোট পাওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে নানা মিম৷ নেটদুনিয়ায় হাসি-ঠাট্টা চলেছে লাগাতার৷ যা দেখে শেষমেশ মুখ খুলেছিলেন ২৬ বছরের স্ট্রাইকার৷ বলেছিলেন, “সকলের যন্ত্রণা ক্ষমতা একরকম হয় না৷ ব্যথা লাগলে কী করব?” তবে ভুললে চলবে না, এই নেইমারের পা থেকে এসেছে দুটি গোলও৷ একাধিক গোলের নেপথ্যেও ছিলেন প্যারিস সাঁ জাঁর তারকা৷ কিন্তু বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে তাঁর প্রদর্শন প্রশংসনীয় ছিল না৷ আর সেই ম্যাচেই ছিটকে যেতে হয়েছে ব্রাজিলকে৷ দলের মিডফিল্ডার ফার্নান্দিনহোও আন্দাজ করতে পেরেছেন, যেভাবে তাঁর আত্মঘাতী গোল দলকে বিপাকে ফেলেছিল, তারপর দেশবাসী হাসি মুখে তাঁকে বরণ করবেন না৷ তাই জানিয়েছিলেন, সবরকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে প্রস্তুত তাঁরা৷

 

০৮ জুলাই, ২০১৮ ১২:২৬:১০