নাসরিনের সঙ্গে সানিকে সমঝোতার পরামর্শ আদালতের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার আরাফাত সানিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় বাদিনী নাসরিন সুলতানার সাঙ্গে সমঝোতার পরামর্শ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো. কামরুর হোসেন মোল্লা এ পরামর্শ দিয়ে আগামী ১৫ মে পর্যন্ত জামিনের মেয়াদ বৃদ্ধি করেছেন।

এর আগে গত ৯ মার্চ বাদিনী নাসরিন সুলতানার অনাপত্তিতে আরাফাত সানিকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন। আজ সানির আইনজীবী এম. জুয়েল আহম্মদ এবং মুরাদুজ্জামান মুরাদ জামিন স্থায়ীর আবেদন করেন।

ওই সময় আদালতে উপস্থিত নাসরিন সুলাতানাকে বিচারক জিজ্ঞাসা করেন, আপনাদের মধ্যে কোন ধরনের সমঝোতা হয়েছে কি না? তখন নাসরিন বলেন, কোন ধরনের সমঝোতা এখনো হয়নি।

সানির আইনজীবী জুয়েল বলেন, সমঝোতা হয়নি, তবে সমঝোতার প্রক্রিয়া চলছে। এরপর বিচারক নাসরিনকে জিজ্ঞাসা করেন, আপনি কি তার (আরাফাত সানি) সঙ্গে এখন সংসার করছেন? জবাবে নাসরিন বলেন, ‘না’।

বিচারক বলেন, আগামি ১৫ মে পর্যন্ত জামিনের মেয়াদ বর্ধিত করা হইল। এই সময়ের মধ্যে বাদিনীর সঙ্গে সমঝোতা করবেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার চার নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন সানির স্ত্রী দাবি করা নাসরিন সুলতানা নামের এক নারী। এই মামলায় আরাফাত সানির মা নার্গিস আক্তারও আসামি। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন।

মামলায় বলা হয়, সাত বছর আগে পরিচয়ের সূত্র ধরে সানি ও নাসরিনের ঘনিষ্ঠতা হয়। একপর্যায়ে তারা দুজন দুজনকে ভালবাসেন। ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর অভিভাবকদের না জানিয়ে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের তিন বছরেও সানি দুই পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করে নাসরিন সুলতানাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরে তুলে নেননি। বারবার এ বিষয়ে চাপ দিলেও তিনি কালক্ষেপণ করেন। এরপর গত ২২ জানুয়ারি সানির মা নার্গিস আক্তার থানার সামনে বাদীকে মারধর করেন।

উল্লেখ্য, আরাফাত সানির বিরুদ্ধে যৌতুক আইনে একটি এবং তথ্য-প্রযুক্তি আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন বাদিনী। তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায় সানির বিরুদ্ধে গত ২২ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। চার্জশিটে আরাফাত সানির সঙ্গে নাসরিন সুলতানার বিয়ে হয়েছিলে বলে উল্লেখ করেছে।

১০ এপ্রিল, ২০১৭ ১৪:৪২:৪৮