এই সরকারের আমলে কোন মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই : ফখরুল
বগুড়া প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট


বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকারের আমলে কোনো মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই, কোনো জবাবদিহিতা নেই, কোনো বিচার নেই । দেশে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে।  বিএনপি নেতা শাহীন হত্যা প্রমান করে দেশে আইনশৃংখলা  বলতে কিছু নেই। তাই দেশের মানুষকে সকল অপকর্মের বিরদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে , রুখে দাঁড়াতে হবে। তিনি বলেন, শাহীনের পরিবার আজ অসহায়। জনগনের পাশে দাঁড়ানোই শাহীনের অপরাধ । এ হত্যাকান্ডে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান অত্যন্ত মর্মাহত। তারা বলেছেন, বগুড়াবাসীর পাশে ছিলাম ,আছি এবং  থাকবো।  

দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত বগুড়া সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীনের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাাতের পর বৃহস্পতিবার  বেলা সাড়ে ১১টায় সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘শাহীন হত্যার ঘটনায় শুধু বগুড়ায় নয়, সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। নিহত শাহীনের কোনো শত্রু ছিল না। শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। এ কারণে  বগুড়াবাসী আজ ুব্ধ। পুলিশ প্রশাসন শাহীনের খুনীদের গ্রেপ্তারে  ব্যর্থ হলে বগুড়াবাসী বসে থাকবে না বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঢাকা থেকে বগুড়ায় আসেন। তিনি শহরের ধরমপুরে নিহত শাহীনের বাসভবনে যান। সেখানে তিনি নিহত শাহীনের স্ত্রী আকতার জাহান শিল্পী, দুই ছেলে সায়েম, সিয়াম এবং মেয়ে সুজনাকে ও পরিবারের সদস্যদের শান্তনা  দেন। তিনি শাহীনের শোকাহত পরিবারের  সদস্যদের সমবেদনা জানান এবং ধৈর্য্য ধরতে বলেন।  এ সময় তিনি বলেন, ‘শাহীন একজন জনপ্রিয় নেতা ছিলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে শাহীন হত্যার বিষয়টি জানানো হয়েছে। তিনি শুনে অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছেন।

এসময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিহত পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, ‘বিএনপি আপনাদের সঙ্গে আছে। হত্যাকান্ডের বিচার না হওয়া পর্যন্ত বিএনপি সব ধরণের সহযোগিতা করে যাবে।’ এসময় বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক  অ্যাডভোকেট এম , রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, এ সরকারের আমলে মানুষের জীবনের কোন মূল্য নেই।  অবিলম্বে শাহীন হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচার করতে হবে। আমি এ আন্দোলনের সাথে থাকবো। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আ্যডভোকেট এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন,  বগুড়া পৌর মেয়র আ্যডভোকেট মাহবুবর রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ, বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোশারফ হোসেন প্রমুখ।

নিহতের পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানানোর পর বিএনপি নেতৃবৃন্দ নিহত শাহীনের কবর জিয়ারত করেন। পরে মির্জা ফখরুল ইসলাম বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাবেক সংসদ সদস্য হেলালুজ্জামান তালুকদার লালুকে দেখতে যান।

 


১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ২০:০২:২৪