নববর্ষে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে, শঙ্কা নেই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


আগামীকাল পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষব বরণের অনুষ্ঠান আয়েজনে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই বলে আশ্বস্ত করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। শনিবার সকালে রমনা বটমূলে ছায়ানটের বর্ষবরণের আয়োজনে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে এসে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ অশ্বাস দেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,আয়োজন নিয়ে কোনো আশঙ্কা নেই। তবে  নিরাপত্তা বাহিনীকে  যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায়  প্রস্তুতরাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পহেলা বৈশাখ একটি  জাতীয় উৎসব। আমি মনে করি, কেউ যদি অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায় তাহলে জনগণই তা প্রতিরোধ করবে। নববর্ষ উদযাপনে সারা দেশে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “উৎসব উদযাপনে কোনো ধরনের অসুবিধা হবে না। পুলিশ, র‌্যাবসহ নিরাপত্তা বাহিনী সতর্ক রয়েছে। কেউ নাশকতামূলক পরিস্থিতি তৈরি করতে চাইলে তাদের উদ্দেশ্য সফল হবে না।”

পহেলা বৈশাখ ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো ধরনের উস্কানি, গুজব বা প্রোপাগান্ডায় কান না দিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, এসব বিষয়ে পুলিশের নজরদারি রয়েছে। এ ছাড়া, কোনরকম দুর্ঘটনা মোকাবেলায়  ফায়ার সার্ভিস ও হাসপাতালগুলোকে তৈরি রাখা হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্র ও পুলিশের পক্ষ থেকে  নিরাপত্তার  আশ্বাসের  মধ্যে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠান উপলক্ষে লাগানো ব্যানার, ফেস্টুন, বিজ্ঞাপন বুথ, স্টলে ভাঙচুর করে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

ডাকসু ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মলচত্বরে গত কয়েকদিন যাবৎ এ আয়োজনের প্রস্তুতি চলেছিল। আজ  শনিবার চৈত্র সংক্রান্তিতে ফোক সঙ্গীত এবং রোববার বৈশাখী কনসার্ট হওয়ার কথা ছিল।

ছাত্রলীগের এক পক্ষের নেতা-কর্মীরা এ ঘটনার জন্য সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের অনুসারীদের অভিযুক্ত করেছেন। তাদের অভিযোগ- স্যার এ এফ রহমান হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান তুষার এবং বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমিন রহমানের নেতৃত্বে এ ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।


১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ২০:৫৮:০৪