গণতন্ত্রের নামে কর্তৃত্ববাদী অপশাসন চালু করা হয়েছে: মির্জা ফখরুল
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
অ+ অ-প্রিন্ট
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বহুদলীয় গণতন্ত্র বিনষ্ট করে গণতন্ত্রের নামে দেশে বর্তমানে কর্তৃত্ববাদী অপশাসন চালু করা হয়েছে।’ আজ (সোমবার) মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব। বর্তমান সরকারের কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থার সমালোচনা করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘বিশাল রক্ত স্রোত আর ত্যাগ-তিতিক্ষার বিনিময়ে মহিমান্বিত আমাদের স্বাধীনতা। কথা ছিল একটি পতাকা পেলে দেশের মানুষ সুখে শান্তিতে থাকবে। কিন্তু দেশের মানুষ সেই সুখ, শান্তি পায়নি। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিপন্ন করার জন্য আজও দেশি-বিদেশি চক্রান্তকারীরা নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। বহুদলীয় গণতন্ত্রের যে যাত্রা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান শুরু করেছিলেন সেটিও আজকে বিনষ্ট করে গণতন্ত্রের নামে কর্তৃত্ববাদী অপশাসন চালু করা হয়েছে।’

৩০ ডিসেম্বরের মধ্যরাতের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রকে নির্বাসিত করা হয়েছে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনকে চিরদিনের জন্য নির্বাসিত করার মাধ্যমে জনগণকে চূড়ান্তভাবে ক্ষমতাহীন করা হয়েছে। নাৎসিবাদের চরম উত্থানে দেশবাসী ভয় ও আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে।’

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘কেউ যাতে মানুষের মৌলিক মানবিক অধিকার নিয়ে কথা না বলে, নাগরিক স্বাধীনতার জন্য আওয়াজ না তোলে সেজন্যই বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। গণতন্ত্রের মা বেগম জিয়াকে বন্দি করার অর্থ গণতন্ত্রকেই বন্দি করে রাখা। সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিয়ে বিপুল জনসমর্থিত নেত্রী, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত ও অপহৃত গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে সাহসী সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে।’

২৫ মার্চ, ২০১৯ ২২:২৫:১২