সড়কে ছাত্র ‘হত্যা’র পর সুপ্রভাত এখন সম্রাট!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
 

 

নিবন্ধন বাতিলের মাত্র একদিন পরেই ‘সুপ্রভাত’ পরিবহন নাম বদলে ‘সম্রাট ট্রান্সলাইন (প্রা.) লি.’ নাম লিখতে চলেছে।  সুপ্রভাতের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসের নিবন্ধন মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সাময়িকভাবে বাতিল করেছিল বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। 

রাজধানীর গাজীপুরা এলাকায় সদরঘাট থেকে গাজীপুর রুটে চলাচলকারী সুপ্রভাত পরিবহনের বাসের রঙ বদলে রাতারাতি সম্রাট পরিবহন নামে পরিবর্তিত হতে দেখা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নিহতের পর রাতারাতি বদলে যাচ্ছে সুপ্রভাত বাসের চেহারা। এ কোম্পানির বিভিন্ন বাস রঙ বদলে সম্রাট পরিবহনে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। এছাড়া গাড়ির মালিকরা তাদের সুবিধা মতো কোম্পানিতে নিজেদের বাস অন্তর্ভুক্ত করতে ব্যস্ত।

একাধিক শ্রমিক, বাসচালক ও সুপারভাইজারেরা জানিয়েছেন, সুপ্রভাত স্পেশাল বাস সার্ভিসটির রুট পারমিট রাজধানীর সদরঘাট থেকে রামপুরা হয়ে উত্তরা পর্যন্ত। এক প্রভাবশালী পরিবহন নেতার প্রভাবের কারণে চলছে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীর গাজীপুরা পর্যন্ত। ৭০টি বাস চলার অনুমোদন থাকলেও চলছে প্রায় সাড়ে তিনশ বাস।

সুপ্রভাতের টঙ্গী স্টেশন রোডের সুপারভাইজার কামরুল ইসলাম ব্রেকিংনিউজকে জানান, সু-প্রভাত পরিবহনের বাসের রঙ বদলে অন্য পরিবহনের নামে চলার বিষয়টি তার জানা নেই। বিষয়টি মালিক কর্তৃপক্ষ বলতে পারবে। এ ব্যাপারে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের (দক্ষিণ) সহকারী কমিশনার মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সুপ্রভাত পরিবহনের কোনও বাস অন্য কোম্পানির নামে পরিবর্তিত হচ্ছে এমনটা আমার জানা নেই। তবে বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি।’

তিনি জানান, সুপ্রভাত পরিবহনের কোনও বাস গাজীপুরে প্রবেশ করতে পারবে না। কোনও কোম্পানি তাদের বাস অন্য কোম্পানিতে পদ্ধতিগতভাবে স্থানান্তর করতেই পারে। তবে বাসটি যে কোম্পানিতে যাচ্ছে সে কোম্পানিটির বৈধ অনুমোদন আছে কি-না সেটা দেখতে হবে।

উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বসুন্ধরায় যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে নদ্দা এলাকায় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসের চাপায় নিহত হন বিইউপি ছাত্র আবরার আহমেদ চৌধুরী। এ ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। বিকেলে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর। 

মঙ্গলবারের মতো বুধবার সকালেও শিক্ষার্থীরা বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রবেশমুখে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। বিইউপিসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েক শ শিক্ষার্থী এতে যোগ দেন। 

বুধবার বেলা ১১টার দিকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে রাজধানীর শাহবাগে অবস্থান নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আশপাশের বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের সঙ্গে যোগ দেন।  এরইমধ্যে গতকাল সুপ্রভাত পরিবহনের ঘাতক বাসটির নিবন্ধন সাময়িকভাবে বাতিল করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। 

২১ মার্চ, ২০১৯ ১২:৫৬:০৮