শোভনকে ‘সন্ত্রাসী’ বলে ছবি তুলতে রাজি হলেন না অরণি
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
ছাত্রলীগ সভাপতি ও ডাকসু ভিপি পদে পরাজিত প্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন কুশল বিনিময় করতে এলে আরেক ভিপি প্রার্থী অরণি শেমন্তি খান তাতে সাড়া দেন। তবে তার সঙ্গে একত্রে ছবি তুরতে রাজি হননি অরণি। নব নির্বাচিত ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরকে শুভেচ্ছা জানাতে টিএসসি অডিটেরিয়ামের মঞ্চে উঠে কুশল বিনিময় করলেও ছাত্রলীগের সভাপতি ও ডাকসু ভিপি পদে পরাজিত প্রার্থী রেজওয়ানুল হক শোভনকে ফিরিয়ে দিয়েছেন আরেক পরাজিত ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান। নুরের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর কোলাকুলি করেন শোভন। এরপর স্বতন্ত্র জোট থেকে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী অরণির উদ্দেশে তার বাড়ানো হাত না ফেরালেও একসঙ্গে ছবি তুলতে রাজি হননি অরণি। শোভনের সঙ্গীদের আবদার না মিটিয়ে অরণি বলেন, ‘সন্ত্রাসীর সঙ্গে ছবি তুলি না।’ বিব্রত শোভন সঙ্গে সঙ্গেই মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ডাকসু নির্বাচনের পরদিন মঙ্গলবার (১২ মার্চ) বিকেল ৪ টার দিকে নুরুর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে টিএসসির অডেটেরিয়ামের মঞ্চ থেকে নেমে আসেন শোভন। কিছুদূর এগিয়ে গেলেও ঘুরে আবার মঞ্চে ওঠেন তিনি। মঞ্চের শেষ প্রান্তে বসা অরণির সামনে দাঁড়িয়ে শোভন হাত বাড়িয়ে দিলে হাত মেলান তিনি।  এরপর সেখানে ছাত্রলীগের এক কর্মী শোভন, অরণিসহ অন্যদের ছবি তুলতে চান। তখন অরণি বলে ওঠেন, ‘না ভাই, কালকে (১১ মার্চ) রোকেয়া হলে এই লোক নিজে বলছে মার, ধর, ( মোবাইল ফোন দেখিয়ে বলেন) আমার কাছে এভিডেন্স আছে। এই লোকের সঙ্গে ছবি তুলবো না। আমার রুচি এত খারাপ হয় নাই।’ সঙ্গে সঙ্গে শোভন তার সঙ্গীদের নিয়ে সেখান থেকে চলে যান।  পেছন থেকে অরণি তখনও বলতে থাকেন ‘সন্ত্রাসীদের সঙ্গে ছবি তুলি না।’ না। শোভন চলে গেলে অরণির সঙ্গীরা করতালি দিয়ে তার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান।

১৩ মার্চ, ২০১৯ ১০:০৩:৩৫