ড. কামালকে জানিয়েই শপথ নিয়েছি: সুলতান মনসুর
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন গণফোরাম নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার পর সংসদ সচিবালয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে শপথ নেন তিনি।

শপথ নিয়ে বেরিয়ে এসে মৌলভীবাজার-২ আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের জ্ঞাতসারেই (নলেজেই) শপথ নিয়েছি। তিনি ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত বাকি সাত সদস্যকেও শপথ নেয়ার আহ্বান জানান।

দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে শপথ নেয়ায় গণফোরাম তাকে বহিষ্কার করতে পারে-এ বিষয়ে সুলতান মনসুরকে জিজ্ঞাসা করেন গণমাধ্যম কর্মীরা। জবাবে মৌলভীবাজার-২ আসনের এ সংসদ সদস্য বলেন, সবার সব কথার উত্তর আমি দেব না। আমি ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রতিনিধি হিসেবে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একটা কথা বলতে পারি—জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতার (ড. কামাল) নলেজেই আমি শপথ নিয়েছি।

গণফোরাম বহিষ্কার করলে কী করবেন এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, দল তার সিদ্ধান্ত নেবে, আমি আমার ভূমিকা পালন করব। দল হিসেবে তারা সিদ্ধান্ত নিতেই পারে।তাদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় থাকুন।আর আমার ভূমিকার অপেক্ষায় থাকেন।

তিনি বলেন, আমি এর আগেও সংসদ সদস্য ছিলাম। সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ জেনে-বুঝেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানির বিষয়ে এ নেতা বলেন, আমরা ৮ জন জয়ী হয়েছি। বাকি ২৯২ আসনে তারা একটি মিছিলও বের করতে পারেনি। তারা জনগণকে সম্পৃক্ত করতে পারলে হয়ত আরও অনেকেই জয়ী হতে পারত।

আওয়ামী লীগের সাবেক এই সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও মৌলভীবাজার-২ আসনের জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। আমার প্রতি তাদের এই অকুণ্ঠ সমর্থনকে শ্রদ্ধা জানাতে শপথ নিয়েছি।জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতাকে জানিয়েই শপথ নিয়েছি।

তিনি বলেন, একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবে সংসদে অংশ নেয়া হল আমার প্রথম ও প্রধান কাজ। আমি আমার সংসদীয় এলাকা এবং জনগণের কথা বলতে শপথ নিয়েছি।


০৭ মার্চ, ২০১৯ ১৬:৫৫:৪৬