ফেসবুকে যুবকের অভিনব প্রতারণার শিকার নারী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ পরিচয়ে নানা প্রলোভন দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাব। বুয়েটের সাবেক ছাত্র, গ্রামীণফোন এবং অ্যাপেল কোম্পানিতে চাকরি করেন বলেও পরিচয় দিতেন এই প্রতারক। রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের একটি বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়। আসল নাম আলামিন হলেও সোশ্যাল মিডিয়াতে তিনি মাহবুব সালাম ফাহিম নামে পরিচিত। পড়াশোনা দশম শ্রেণি পর্যন্ত কিন্তু পরিচয় দিতেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ত্রিপোলিতে উচ্চতর শিক্ষা শেষে গ্রামীণফোনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে চাকরিরত। আবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে অ্যাপেল কোম্পানিতে চাকরি করতেন বলেও পরিচয় দিতেন।

সত্যিটা হলো আলামিন সৌদি আরবে চালাতেন প্রাইভেটকার। আর এসব পরিচয় গোপন করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁদ পেতে টার্গেট করতেন নারীদের। হাতিয়ে নিতেন লাখ লাখ টাকা। আলামিন জানান, এসএসসি পর্যন্ত পড়াশুনা করেছি। সবাইকে বলেছি আমি অ্যাপেলে জব করি। কিন্ত আমি অ্যাপেলে জব করি না।

তিন বছর ধরে পশ্চিম রাজাবাজার এলাকায় স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করলেও প্রতিবেশী কেউই জানতেন না তার অপরাধের কথা। প্রতিবেশীরা জানায়, ভাড়া নিয়ে ছিলেন তার স্ত্রী ছোট একটা বাচ্চা ছিল। পরে জানতে পেরেছি, তিনি সৌদি আরব থাকেন।

সবশেষ প্রতারিত এক নারীর কাছ থেকে ৮ লাখ টাকা নিয়ে ফেরত দিতে গড়িমসি করলে র‌্যাব-১০ এর কাছে কাছে অভিযোগ করেন তিনি। একমাসের অনুসন্ধান শেষে সোশ্যাল মিডিয়ার এই প্রতারককে রোববার আটক করে র‌্যাব।

র‍্যাব-১০ উপ-অধিনায়ক মেজর মো.আশরাফুল হক বলেন, ‘তিনি সবাইকে বলতেন পিএইচডি ফর্ম সুইজারল্যান্ড। এবং আমি অ্যাপেলে চাকরি করি। এই রকম পরিচয় দিয়ে তিনি বিভিন্নভাবে মেয়েদের সাথে প্রতারণা করতেন। এবং নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিতেন।

আলামিনের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল থানার রাজাপুর গ্রাম। এ ধরনের ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন থাকার পরামর্শ র‌্যাবের।


০৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৮:৫৯:১১