'মানুষ বলবে, শামীম ওসমান একটা পাগল ছিল'
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জে এতো উন্নয়ন করার পরও যদি বিএনপির এমপি হয় তাহলে মানুষ বলবে, শামীম ওসমান একটা পাগল ছিল। শুধু শুধু এতো উন্নয়ন করেছেন, কিন্তু এমপি তো হতে পারলেন না। সোমবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলীতে নির্বাচনী গণসংযোগকালে এক পথসভায় এসব কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমান। তিনি বলেন, স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি দাবী করা সো-কল সুশীল সমাজের লোকেরা শুধুমাত্র ক্ষমতার লোভে তারেক রহমানের মতো লোকের অধীনে গিয়ে রাজনীতি করছেন। আর তাই নিজেকে রাজনীতিবিদ বলতে লজ্জা লাগছে। 

দেশের চলমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, 'বিএনপিতে এমন একজন উপযুক্ত নেতাও নেই যিনি দলীয় প্রার্থীর মনোনয়ন নিয়ে মনোনয়ন বোর্ডে কথা বলবেন। আমার দুঃখ লাগে, কষ্ট লাগে ড. কামাল হোসেনদের মতো লোকেরা যারা নিজেদেরকে অনেক জ্ঞানী ভাবেন, আ স ম আবদুর রব ভাইয়ের মতো লোকেরা, কাদের ছিদ্দিকির মতো লোকেরা, সুলতান মোহাম্মদ মনসুর রহমানের মতো লোকেরা আজকে তারেক রহমানের মতো একজন অশিক্ষিত ও খুনির অধীনে গিয়ে শুধুমাত্র ক্ষমতায় যাওয়ার লোভে রাজনীতি করছেন। ওনাদের দেউলিয়াত্বে আমার মনে হয় ওনারা খুব অসহায়। ওনাদের জন্য আমার সমবেদনা প্রকাশ করা ছাড়া আর কিছু করার নাই।'

তারেক রহমান প্রসঙ্গে শামীম ওসমান বলেন, 'স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি জামাতকে নিয়েই বিএনপি আবারো নির্বাচন করতে যাচ্ছে। যারা ২১ আগস্টে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছে, ২০০১ সালের পর থেকে এদেশে গণহত্যা করেছে, আগুন সন্ত্রাস করেছে, সেই সব শক্তির সাথে সো-কল সুশীল সমাজ যারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি দাবী করে তারা আজ ঐক্যবদ্ধভাবে যে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন এবং যে নির্বাচনের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন একজন তারেক রহমান, যিনি একজন চিহ্নিত অপরাধী, দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত এবং দেশের আদালত দ্বারা ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত। আমি অবাক হচ্ছি, যে ঘৃণ্য রাজনীতি ওনারা শুরু করেছেন তাতে আজকে আমার নিজেকেও রাজনীতিবিদ বলতে লজ্জা লাগছে।'

বিএনপি প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, 'মানুষের যে নার্ভ দেখছি, যে ঘৃণার জায়গায় ওনারা পড়ে গেছেন আমার মনে হয় এই জায়গা থেকে তারা আর কোনদিন উঠে আসতে পারবেন কিনা যথেষ্ট সন্দেহ আছে। বিএনপি জামাত, সো-কল ঐক্যজোটের নেতারাও তা বুঝছেন। আদৌ তারা নির্বাচনে আসবেন কিনা আমার সন্দেহ আছে। জনগণ থেকে যেহেতু তারা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছেন হয়তো নির্বাচন বন্ধ করার পাঁয়তারা চালাবেন। মনোনয়ন পত্র সংগ্রহের দিন নিজেদের দলীয় কার্যালয়ের সামনে যে আগুন সন্ত্রাস তারা করেছিল হয়তো সেই পথেই তারা যাবেন।'

বিএনপি ও ঐক্যজোটকে উদ্দেশ্য করে শামীম ওসমান বলেন, আমি অনুরোধ করবো, নির্বাচন করতে আসছেন করেন। জনগণ যদি ভোট দেয়া আমরা থাকব, ভোট না দিলে থাকবো না। কিন্তু অন্য পথ কেউ বেছে নিলে আমার বিশ্বাস জনগণ এবার তাদের ছাড়বে না।

 

 

 

 

 

১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫৯:৪১