বি চৌধুরীর বাসায় ডা. জাফরুল্লাহ, প্রস্তাব প্রত্যাখান
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বিকল্পধারার সভাপতি ও সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. এ‌কিউএম বদরু‌দ্দোজা চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন গণস্বাস্থ্য কে‌ন্দ্রের প্র‌তিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সোমবার রাত পৌনে দশটার দিকে বি. চৌধুরীর বারিধারার বাসায় গিয়ে তার সাথে সাক্ষাৎ করেন তিনি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম এ উদ্যোক্তা প্রায় ঘণ্টাখানেক বৈঠক করেন বি চৌধুরীর সঙ্গে। এসময় তিনি সাবেক এ রাষ্ট্রপতিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগাদন করার আহ্বান জানালে বি. চৌধুরী এ প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন। বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী।

সাক্ষাৎ শেষে রাত সাড়ে ১০টায় বি চৌধুরীর বাসার সামনে সাংবাদিকদের জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, আমরা সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। কেউ বাদ পড়বে না। 

এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জাফরুল্লাহ বলেন, ‘আগে যারা ছিল সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে বাদ দিয়ে কিছু হয় নাকি? আমরা সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই।’

এ সময় ডা. জাফরুল্লাহকে গাড়িতে তুলে দিতে যান বিকল্পধারা বাংলাদেশ-এর যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী। তাকে উদ্দেশ করে জাফরুল্লাহ বলেন, ‘ভালো থেকো। এতো তাড়াহুড়া করো না। তোমরা সবাই আল্লাহর দোয়ায় ভালো থেকো। তখন মাহী বি চৌধুরী ডা. জাফরুল্লাহকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘চাচা আমরা ফুল নিয়ে আপনার জন্য অপেক্ষা করবো। আপনি কবে আমাদের সঙ্গে আসবেন।’

এরপর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মাহী বি চৌধুরী। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘ডা. জাফরুল্লাহ বিকল্পধারার সভাপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী ও দলের মহাসচিব মেজর (অব) মান্নানের সঙ্গেও কথা বলেছেন। আমিও কিছুক্ষণ ছিলাম সেখানে। ১৩ অক্টোবরের ঘটনার জন্য ডা. জাফরুল্লাহ দুঃখ প্রকাশ করেছেন যে বি চৌধুরীকে আমন্ত্রণ জানিয়ে তারা থাকতে পারেনি। এটা ভালো বা সঠিক হয়নি। এই কথাটি বলতে এসেছেন তিনি। এরপর আবারও একই আলোচনা শুরু হয়েছিল। কিন্তু বি চৌধুরী বলেছেন, এবার আমাদের মাফ করবেন। হতেই পারে রাজনীতিতে আপনাদের এক রকম মত থাকবে, আমাদের আরেক রকম মত থাকতে পারে।’

মাহী বলেন, আমরা ওনাকে বলেছি যে, আমাদের মত স্পষ্ট যে, স্বাধীনতাবিরোধীদের সঙ্গে কোনও ঐক্যে যাবো না। এছাড়া যদি ক্ষমতার ভারসাম্যই না আসে, নির্দিষ্টভাবে একটি দলকে ক্ষমতায় নেওয়ার জন্যই যদি ঐক্য হয় সেটা দেশকে স্বেচ্ছাচার মুক্ত করবে না। সুতরাং আমরা আমাদের অবস্থান থেকে সরতে পারবো না। তখন ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, ওইদিন আমাদের ভুল হয়েছে। এজন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি। তখন আমরা বলেছি, এই ভুলের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করার কিছু নেই। তবে আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাফল্য কামনা করি। ড. কামাল হোসেনের সাফল্য কামনা করি। আপনারা নিজেদের মতো চলতে থাকুন। আমরা আমাদের মতো চলবো।

প্রসঙ্গত ড. কামাল হোসেনের আহ্বানে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার উদ্যোগে শুরু থেকে বিকল্পধারা থাকলেও শেষ পর্যন্ত মতদ্বৈততার কারণে তাদের বাইরে রেখেই গত শনিবার গঠিত হয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে নয়া জোট।

ওইদিন সন্ধ্যায় রাজধানীর বারিধারায় নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন বি চৌধুরী। বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যে ঐক্য প্রক্রিয়া চলছে তার সঙ্গে বিকল্প ধারা থাকবে না। এছাড়া সংসদে ভারসাম্য এবং স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধ করতে নিজ দলের জন্য ১৫০ আসন দাবি করেন তিনি।

 

১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০৬:১৯:০৮