বর্তমান আওয়ামী লীগে বঙ্গবন্ধুর উপস্থিতি নেই: কাদের সিদ্দিকী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
বর্তমান আওয়ামী লীগে বঙ্গবন্ধুর উপস্থিতি নেই বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী । সে জন্য তিনি আওয়ামী লীগ করেন না। শুক্রবার বিকেলে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু হত্যা ও তার প্রতিবাদ, প্রতিরোধ সংগ্রাম’ শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আবদুল কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগ করি না। এই জন্য করি না, আজকের আওয়ামী লীগে বঙ্গবন্ধু নাই, বঙ্গবন্ধুর নীতি-আদর্শ নাই। বরং যারা বঙ্গবন্ধুকে খুন করার ক্ষেত্র প্রস্তুত করেছে, তারা আজকে এই সরকার এবং আওয়ামী লীগে সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থানে আছে। যত দিন বেঁচে থাকব, এর বিরোধিতা করে যাব।’

বঙ্গবন্ধুকে সপরিবার হত্যার প্রতিবাদে ১৯৭৫ সালে তার নেতৃত্বে প্রতিরোধ গড়ে তোলা প্রসঙ্গে কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘প্রতিবাদের যে বীজ আমরা বপন করেছি, সেটা না হলে আওয়ামী লীগের আজকের এই অবস্থা থাকত না। আওয়ামী লীগ কবরের নিচে থাকত।’ ওই সময়ের প্রতিবাদকারীদের কোনো মর্যাদা ও স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি বলেও দাবি করেন তিনি। কাদের সিদ্দিকী বলেন, সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে বা অক্টোবরের শুরুতে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদকারীদের সম্মান জানাবেন এবং প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করবেন সেখানে উপস্থিত থাকার জন্য।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) জাল ভোট দেওয়া যায় উল্লেখ করে তা জনগণ চায় না বলে জানিয়েছেন কাদের সিদ্দিকী।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিধান যুক্ত করে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে নির্বাচন কমিশনারদের সভায় এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে তারা। ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্তে অন্য কমিশনারদের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করে নোট অব ডিসেন্ট (আপত্তিপত্র) দিয়ে কমিশন সভা বর্জন করেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মাহবুব তালুকদার। এ ব্যাপারে আজ কথা বলেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘নির্বোধ, অপদার্থ নির্বাচন কমিশন, তিনি ইভিএমের একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইতিহাসে নেই, কোনো কমিশনের সদস্য কমিশনের মিটিং বয়কট করেন। সেটাও হয়েছে। এই জিনিস মানুষ চায় না, এটা ভালো না, সেজন্য এগুলো করা উচিত না।’

 

৩১ আগস্ট, ২০১৮ ২২:৪৮:২১