যথেষ্ট হয়েছে, সন্তানদের ঘরে ফিরিয়ে নিন : প্রধানমন্ত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (ফাইল ছবি)
শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রতি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ঘরে ফিরিয়ে নেওয়ারও আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যথেষ্ট হয়েছে আর না, ঘরের ছেলে-মেয়ে ঘরে ফিরে যেতে হবে। লেখাপড়া করতে হবে। আর কোনো বাবা-মায়ের কোল খালি হোক আমি চাই না। কারণ, হারানোর বেদনা আমি বুঝি। অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ, সন্তানদের ঘরে ফিরিয়ে নিন। অগ্নিসন্ত্রাসীদের পক্ষে যেকোনো কিছু করতে পারে। রোববার (০৫ আগস্ট) সকালে গণভবন থেকে ১০ জেলার ৩০০ ইউনিয়ন পরিষদে অপটিক্যাল ফাইবার কানেক্টিভিটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবি যথেষ্ঠ ধের্য্যের পরিচয় দিয়েছে। মন্ত্রী-এমপি সবাই তাদের সঙ্গে সহযোগিতা করেছে। তাদের কোনো বাধা দেয়নি। আমি বলেছি ওরা যাই করুক ধৈর্য ধরতে হবে। শিক্ষার্থীদের দাবি-দাওয়া সব মেনে নেয়া হয়েছে। আশা করছি তারা ঘরে ফিরে যাবে। তাদের মূল দায়িত্ব পড়াশুনা করা।

অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে তৃতীয় শক্তি ঢুকে পড়েছে। তৃতীয় শক্তি মানুষ না। এরা পারে না এমন কোনো কাজ নেই। অভিভাবক-শিক্ষকদের বলব, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দায়িত্ব আপনাদের। তাদের লেখাপড়া শেখাটা সবচেয়ে বেশি জরুরি। তারা স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে যাবে, পড়াশুনা করবে।

সবাইকে ট্রাফিক আইন ও নিয়ম মানার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ট্রাফিক আইনটি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন শেষে এটি সংসদে পাশ করা হবে। আমাদের হাইওয়ে হয়েছে। চালকরা যাতে পথিমধ্যে বিশ্রাম করতে পারে সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে। চালকের সহকারীকেও প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তির গুরুত্বের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রযুক্তির শিক্ষা না নিলে আমরা পিছিয়ে থাকবো। বিশ্বের সঙ্গে তাল মেলাতে পারবো না। আমরা ২৫ হাজার পোর্টাল দিয়ে তথ্য বাতায়ন খুলেছি। আমরা মানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিচ্ছি। ভর্তি, চাকুরির আবেদন, বিদেশ যাওয়ার বিষয়ে যাবতীয় যোগাযোগ এখন অনলাইনে করা যায়। আমরা পোস্ট অফিসগুলোকেও আরও উন্নত করার পদক্ষেপ হাতে নিয়েছি।

গত ২৯ জুলাই বাসচাপায় রাজধানীতে দুই শিক্ষার্থীর নিহতের ঘটনায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ চলছে সারা দেশে। এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ ঘটনা আমরা অত্যন্ত দুঃখিত। পথচারী-চালক সবাইকে ট্রাফিক আইন মানতে হবে। স্কুলেই শিশুদের ট্রাফিক আইন শেখাতে হবে। রাস্তায় দৌঁড় মারা যাবে না। এভাবে দুর্ঘটনার শিকার হলে দায়টা কে নেবে?

 

০৫ আগস্ট, ২০১৮ ১২:৪৫:৫৯