'বিএনপিই খালেদা জিয়া ও তারেককে রাজনীতি থেকে মাইনাস করেছে'
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রাজনীতি করতে হলে যে যে সৎ সাহসের প্রয়োজন তা দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক রহমান নিজেরাই নিজেদের রাজনীতিতে থেকে মাইনাস করে ফেলেছেন।

তিনি বলেন, ‘তারা নিজেরাই নিজেদের মাইনাস করে ফেলেছেন। কারণ দুর্নীতি না করলে তাদের সাজা হতো না। বিএনপি মধ্যরাতের ক্যূ’র মাধ্যমে দলীয় গঠনতন্ত্র থেকে ৭ ধারা বাদ দিয়ে আত্মস্বীকৃত দুর্নীতিবাজ দল হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে।’ তাই নির্বাচন কমিশনকে আরপিও পরিবর্তনের মাধ্যমে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে মাইনাস করার দরকার নেই, তারা নিজেরাই নিজেদের রাজনীতি থেকে মাইনাস করেছে। ওবায়দুল কাদের আজ বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপুমনি এমপি, আব্দুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, একেএম এনামুল হক শামীম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন নাহার লাইলী, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা ও উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেওয়া ও না নেওয়ার বিষয়ে মতভেদ রয়েছে। তারা নির্বাচনে অংশ নেবে কি নেবে না সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না।

তিনি বলেন, বিশ্বের অন্যান্য সংসদীয় গণতান্ত্রিক দেশের রীতি অনুযায়ী সংবিধান অনুসারে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কোন দলের নেতা বা নেত্রীর জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না। সাংবিধানিক বাধ্যবাধ্যকতার জন্যই নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আগামী ২১ জুলাই আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে তা জনসভার মতো উন্মুক্ত থাকবে না। অনুষ্ঠানে ২৫ হাজার চেয়ারের ব্যবস্থা করা হবে। এ অনুষ্ঠানের শুরুতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।

এছাড়া আগামী ১৮ জুলাই একই স্থানে সারাদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শৈশব থেকে এখন পর্যন্ত সংগৃহীত সকল ছবি নিয়ে এক আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে যাতে নির্বাচনী আচারণ বিধিমালা লঙ্ঘিত না হয় এবং স্থানীয় ভোটাররা বিরক্ত না হয় সেজন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের নির্বাচনী এলাকায় না যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তবে ওই তিন সিটি কর্পোরেশনের যারা ভোটার তারা ইচ্ছা করলে যেতে পারবেন। তবে ঢাকা থেকে তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন মনিটরিং করা হবে বলেও জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

 

১৬ জুলাই, ২০১৮ ০০:৪৫:২১