'দুই বাংলা ভাগ হলেও নজরুল কখনো ভাগ হয়নি'
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


পশ্চিমবঙ্গের কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাওয়া সম্মানসূচক ডি. লিট উপাধি পুরো বাঙালি জাতিকে উৎসর্গ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২৬ মে) দুপুর দেড় টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষ সমাবর্তনে ডি লিট সম্মাননা গ্রহণ করেন তিনি।

সম্মাননা গ্রহণের পর বক্তব্যে শেখ হাসিনা বলেন, এ সম্মান শুধু আমার নয়, সব বাঙালির।

বক্তব্যে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমার জন্য আজকের দিনটি তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ কবি নজরুল ইসলামের নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমাকে ডিলিট প্রদান করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশের জন্য বড় সম্মানের। এ সম্মান শুধু আমার নয়, সব বাঙালির।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দুই বাংলা ভাগ হলেও নজরুল কখনো ভাগ হয়নি। তিনি শুধু বাংলাদেশের কবি নন। তিনি দুই দেশেরই কবি।

কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাধন চক্রবর্তী জানান, ‘শোষণমুক্ত, বৈষম্যহীন সমাজ গঠনে এবং গণতন্ত্র, নারীর ক্ষমতায়ন, দারিদ্র্য দূরীকরণ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের উন্নয়নে অসাধারণ ভূমিকা রাখার জন্য শেখ হাসিনাকে এ উপাধি দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে দু’দিনের সরকারি সফরে গতকাল কলকাতা যান প্রধানমন্ত্রী। এরপর শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি। ওই অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদী এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মিত 'বাংলাদেশ ভবন'-এর উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদী। এরপর দু'দেশের প্রধানমন্ত্রী সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। ওইদিন বিকেলে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আবাসস্থল জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন করেন শেখ হাসিনা। আজ নেতাজী সুবাস বসু জাদুঘর পরিদর্শনের কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। এরপর রাতে দেশে ফিরবেন তিনি।





 


২৬ মে, ২০১৮ ১৬:১৪:২৯