রাজকীয় বিয়েতে প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়নাকে অনন্য সম্মান হ্যারি-মেগানের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
সেই ট্র্যাডিশন সমানে চলছে। আর সেই ঐতিহ্যের মধ্যে দিয়েই শনিবার ব্রিটিশ রাজপরিবারের নববধূ মেগান মার্কল বাঁচিয়ে রাখলেন প্রিন্সেস ডায়নাকে। রাজকীয় পরিবেশে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন প্রিন্স হ্যারি এবং মেগান। দীর্ঘদিনের প্রেম অবশেষে পালটে গেল পরিণয়ে। যেমনটা আশা করা হয়েছিল, এদিনের জাঁকজমক যেন তাকেও হার মানালো। তবে এ সবকিছুর মধ্যেও প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়নাকে মনে করিয়ে দিলেন নয়া রাজবধূ। ঐতিহ্য মেনে প্রিন্স হ্যারি বিয়ের আসরে হাজির হলেন কালো পোশাকে। ধবধবে সাদা গাউনে সেজে উঠেছিলেন মেগান। হাতে ছিল সাদা ফুলের একটি তোরা। ব্রিটিশ রাজপরিবারের ট্র্যাডিশন মেনেই ফুলের তোরা হাতে প্রবেশ মেগানের। তবে এটি সাধারণ কোনও বোকে নয়। বিশেষ কয়েক ধরনের ফুল দিয়ে সাজানো তোরাটি কিন্তু বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। কেনিংটন প্যালেসের বাগান থেকে নিজে হাতে এই বিশেষ ফুলগুলি স্ত্রীর জন্য তুলেছিলেন প্রিন্স হ্যারি। ফরগেট-মি-নটস, লিলি-অফ-দ্য-ভ্যালি, অ্যাসটিলবে, অ্যাসট্রানশিয়া, মার্টল এবং সুইস পিস ফুল দিয়ে তৈরি হয়েছে ফুলের তোরাখানি। প্রত্যেকটি ফুলের আলাদা আলাদা বিশেষত্ব রয়েছে।

লিলি-অফ-দ্য-ভ্যালি মিষ্টত্ব ও সুখের প্রতীক। অ্যাসটিলবে ফুল ধৈর্য ও আত্মত্যাগের প্রতীক। শক্তি, সাহস এবং নিরাপত্তার রূপক অ্যাসট্রানশিয়া। মার্টল ফুলটি রয়্যাল পরিবারের ঐতিহ্যের প্রতীক। রানি ভিক্টোরিয়ার আমল থেকেই বিয়ের আসরে রাজপরিবারের কনের হাতে দেখা যেত এই ফুল। আশীর্বাদের প্রতীক সুইস পিস। আর ফরগেট-মি-নটস? এটি প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়নার সবচেয়ে পছন্দের ফুল। আর নিজের ফুলের তোরায় এই ফুল যোগ করে রাজকীয় বিয়েতে মেগান শামিল করেছিলেন ডায়নাকেও।

শুধুই কি ফুলের বাহার? ব্রিটিশ রাজপরিবারের বিয়েতে অতিথি সমাগম থেকে বিশালাকার কেক, খাওয়াদাওয়া থেকে সাজসজ্জা, সবেতেই ছিল রয়্যাল ছোঁয়া। আমন্ত্রিতদের তালিকায় ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও। তাঁর সাজেও ধরা পড়ল ব্রিটিশ ফ্যাশন।

শনিবার সকালে শুধুমাত্র প্রাতঃরাশের জন্যই নিমন্ত্রিত ছিলেন ৬০০ জন। সেন্ট জর্জ হলে আপ্যায়ন করা হয় তাঁদের। যেখানে পরিবেশন করা হয় ৫০০ টি ডিম দিয়ে তৈরি সুস্বাদু ওয়েডিং কেক। এছাড়া মেনুতে ছিল স্কটিশ সালমন, উইন্ডসোর ল্যাম্ব, কোয়েল এডস, শেম্পেইন-সহ নানা ধরনের রাজকীয় পদ। ডেসার্টের মধ্যে ক্র্যাম্বল টার্লেট, ক্রিম ব্রুলির মতো নানা অজানা খাবারের আয়োজন করা হয়।

শুধু রাজ পরিবার জুড়েই নয়, গোটা ইংল্যান্ডেই এদিন সাজসাজ রব। শহরের বিভিন্ন রেস্তরাঁ, পাবে রাজকীয় বিয়ের কথা মাথায় রেখে তৈরি হয়েছে বিশেষ ডিশ। যাতে সাধারণ মানুষও পরোক্ষভাবে শামিল থাকতে পারেন এই বিবাহ বাসরে।

 

২০ মে, ২০১৮ ০২:০৭:৪৩