সুফিয়া কামাল হলে মারধরের ঘটনায় বহিষ্কার হলেন 'নিযার্তিত' ছাত্রীরাই
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগ সভাপতি ইফাত জাহান এশাকে ফুলের মালা পরিয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা
গত ১০ এপ্রিল রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের 'অনাকাঙ্খিত ঘটনার' জেরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের একাধিক নেতাকর্মীকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে। সোমবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। প্রসঙ্গত, ওইদিন রাতে মারধর ও হয়রানির শিকার হয়েছিলেন সুফিয়া কামাল হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইফফাত জাহান এশা।বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে রয়েছেন সেদিনের ঘটনায় আহত সুফিয়া কামাল হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মুর্শেদা খানম সহ ২৩ জন।

গেলো ৮ এপ্রিল থেকে কোটা সংস্কারের দাবি টানা আন্দোলন শুরু হয়। চতুর্থদিনের মাথায় সুফিয়া কামাল হলে গভীর রাতে কোটা সংস্কারের আন্দোলনে যাওয়ায় কয়েকজন শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের খবর ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, হল ছাত্রলীগ সভাপতি ইশরাত জাহান এশা কয়েকজনকে নির্যাতন করে আহত করেছেন। 

নির্যাতিতরা জানান, তারা সকলেই ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। এ সময় হল ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মুর্শেদা খানমের পা কেটে যাওয়া ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হলে মুহূর্তেই অন্যান্য হল থেকে সুফিয়া কামাল হলে জড়ো হন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা। তারা হল সভাপতি এশার বিচার দাবি করেন।

পরে তাৎক্ষণিকভাবে বহিষ্কার করা হয় হল ছাত্রলীগ সভাপতি ইশরাত জাহান এশাকে। তবে বহিষ্কার করার তিন দিনের মাথায় এশাকে নির্দোষ দাবি করা হয়। স্বপদে ফেরায় ছাত্রলীগ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বহিষ্কৃত এক শিক্ষার্থীর দাবি, সোমবারের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মুর্শেদা খানম ছাড়াও সহ সভাপতি আতিকা হক স্বর্ণা, মিরা, সাংগঠনিক সম্পাদক সুমি, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শারমিন আক্তার, সহ সম্পাদক শ্রাবণীসহ যে ২৪ নেতাকর্মীর নাম প্রকাশ হয়েছে, তাদের সবাই ওইদিন রাতে এশার নির্যাতনের প্রতিবাদ করেছিলেন।

 

 

 

 

 

১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:৪৫:৪৬