আন্দোলনে সঙ্গে ছিলাম, খনো আছি : ছাত্রলীগ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট


সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা সংস্কার আন্দোলনে ছাত্রলীগও ছিলো বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। তিনি বলেন, এই আন্দোলনে ছাত্রলীগ আগেও ছিল, এখনও আছে। আমরা আগে ছাত্র পরে লীগ। প্রধানমন্ত্রী বলেন কোটা ছিল ছাত্রদের জন্য তারা যদি না চায় তাহলে কোটা থাকবে না। চাকরি হবে মেধাবীদের।  বললেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান।  বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ছিলেন। কোটা নিয়ে আন্দোলনকারী ছাত্রদের ২০ দলের প্রতিনিধি দলের সমন্বয় করেছিল ছাত্রলীগ। ঢাবির ভিসির বাড়িতে যারা ভাংচুর করেছেন তাদের বিচার চেয়েছি। আন্দোলনকারীদের বিচার চাইনি।

জাকির বলেন, আমরা ছাত্রদের সঙ্গে আগেও ছিলাম, এখনো আছি। আমরা ছাত্র সমাজ নিয়ে কাজ করি।

কোটা পদ্ধতির সংস্কারের দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরে সারা দেশে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় পুলিশ অনেককে গ্রেপ্তার করেছে। অনেকে আহত হয়েছেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গেলো ৯ এপ্রিল আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ২০ সদস্যের প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক করে সরকারের পক্ষ থেকে ১ মাস সময় নেয়া হয়। পরে আন্দোলন ১ মাস স্থগিত করা হলেও পরের দিন আবার আন্দোলনে নামেন এক অংশের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনে অংশ নেয়া এক ছাত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হল ছাত্রলীগের সভাপতি ইশরাত জাহান এশাকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

আন্দোলনকারীদের পাঁচ দফা দাবি হচ্ছে সরকারি নিয়োগে কোটার পরিমাণ ৫৬ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করা, কোটার যোগ্য প্রার্থী না পেলে শূন্যপদে মেধায় নিয়োগ, কোটায় কোনো ধরনের বিশেষ নিয়োগ পরীক্ষা না নেয়া, সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে অভিন্ন বয়সসীমা, নিয়োগ পরীক্ষায় একাধিকবার কোটার সুবিধা ব্যবহার না করা।


১১ এপ্রিল, ২০১৮ ১৫:১৯:১৪