বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত নগরীর তালিকায় ঢাকা দ্বিতীয়
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত নগরীর তালিকায় এবারও ঢাকা দ্বিতীয়। স্মার্টফোনের একটি এপ্লিকেশন এয়ার ভিসুয়াল দিয়ে বাতাসের ডাটা সংগ্রহ করে এই সূচক করা হয়েছে। এ হিসাবে সবচেয়ে দূষিত থেকে পর্যায়ক্রমে ১০টি শহর হলো নেপালের কাঠমান্ডু, বাংলাদেশের ঢাকা, পাকিস্তানের লাহোর, চীনের শেনিয়াং, বেইজিং, ভারতের কলকাতা, থাইল্যান্ডের চিয়াংমাই, চীনের চেংদু, ভারতের দিল্লি ও চীনের সাংহাই।

তালিকার থাকা শহরগুলোর মধ্যে ঢাকা হলো বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহরগুলোর অন্যতম। দীর্ঘদিন ধরে বায়ুদুষণের সমস্যায় ভুগছে শহরটি। তবে সবচেয়ে বেশি বায়ুদূষণের শহরের তালিকার দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছে।  

নগরবিশেষজ্ঞরা বলেন, অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে ঢাকার চারপাশে ভরপুর ইটভাটায়। রাস্তায় জ্বালানি পুড়ছে গাড়িতে। তা থেকে বাতাসে উচ্চমাত্রায় ছড়িয়ে পড়ছে সালফার। বায়ুদূষণের জন্য নির্মাণ কাজকে বড় ধরনের দূষণের নিয়ামক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। অক্টোবর থেকে এপ্রিল পর্যন্ত এখানে বাতাসের গুণগত মানের আরও অবনতি হয়। তবে বর্ষাকালে তার কিছুটা উন্নতি হয়। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ঢাকার পরিস্থিতি খুবই গুরুতর।

জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকি বাড়ানো বুঝাতে ছয়টি ক্যাটাগরিতে এ সূচক প্রণয়ন করা হয়েছে। কোনো শহর যদি এই সূচকে ৩০০ অতিক্রম করে তাহলে সেখানকার বাতাসের গুণগত মানকে জনস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

এদিকে চলতি বছরের ১৮ মার্চ প্রকাশিত ইউএস এনভায়রনমেন্ট প্রটেকশন এজেন্সির জরিপেও দূষিত শহরের তালিকায় ঢাকা শীর্ষে রয়েছে। ওই তালিকায় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা হলো বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত নগরীর মধ্যে চতুর্থ। সূচক মূল্যায়ন যার ১৯৫। ওই জরিপেও সবচেয়ে বেশি দূষিত নগরী হিসেবে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুকে দেখানো হয়েছে।

স্ট্যাটিসটিকস অব বাংলাদেশ ডিপার্টমেন্ট অব এনভায়রনমেন্ট দেখাচ্ছে যে, বাতাসের গুণগত মানের সূচক ঢাকায় ১১ মার্চ ছিল ৫০১ স্কোরে। একই দিনে এই স্কোর গাজীপুরে ছিল ৩৩৮ এবং নারায়ণগঞ্জে ছিল ৩০৮। দেশে সব শহরের মধ্যে মার্চে সবচেয়ে বেশি বায়ুদূষণ রেকর্ড করা হয় নারায়ণগঞ্জে। সেই স্কোর ছিল ৫৩৮। বিশেষজ্ঞদের মতে, শুষ্ক মৌসুমে বাতাসে সাধারণত ধুলোবালির পরিমাণ অন্য সময়ের তুলনায় পাঁচ গুণ বৃদ্ধি পায়। নির্মাণ প্রতিষ্ঠান থেকে ছড়িয়ে পড়া ধুলোবালি, ময়লায় এই পরিস্থিতিকে আরো খারাপ করে তোলে। শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে এসব ধুলোবালি শরীরে প্রবেশ করে শ্বাসযন্ত্রের মারত্মক ক্ষতি করতে পারে।

২৩ মার্চ, ২০১৮ ১৪:২১:২৭