শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্ধনগ্ন করে রাতভর র‌্যাগিং
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্ধনগ্ন করে রাতভর র‌্যাগিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সিনিয়র শিক্ষার্থীরা তাদের জুনিয়র শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এ ঘটনা ঘটায়। এসব ঘটনা কাউকে না জানানোর হুমকি দেয় ২০১৬-১৭ সেশনের কয়েকজন শিক্ষার্থী। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ না পেলেও তদন্ত সাপেক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সর্বোচ্চ শাস্তি দেবেন বলে জানিয়েছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সিনিয়র শিক্ষার্থীরা নবীন ছাত্রদের মেসে ডেকে নিয়ে র‌্যাগ দেয়। র‌্যাগিংয়ের শিকার এসব শিক্ষার্থীরা প্রচণ্ড মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ভুক্তভোগী কয়েকজনের সাথে কথা বলে এসব জানা গেছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাত দশটার দিকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের ছয় নবীন শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রধান ফটকের তপোবন আবাসিক এলাকার একটি মেসে নিয়ে যান বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের কয়েকজন শিক্ষার্থী। পরিচয়ের নামে তাদেরকে রাত দশটা থেকে পরদিন সকাল ছয়টা পর্যন্ত আটকে রাখে তারা। এক পর্যায়ে নবীন শিক্ষার্থীদের মারধর করেন সিনিয়ররা।

পরবর্তীতে তাদেরকে বাধ্য করে অর্ধনগ্ন ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন অশ্লীল ক্যাপশন দিয়ে একটি গ্র“পে পোস্ট করান তারা। ভুক্তভোগী কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিষয়টি নিয়ে তারা প্রচণ্ড রকমের মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। এনিয়ে তারা কারো সাথে কথা বলতেও ভয় পাচ্ছেন। তাই বিষয়টি নিয়ে তারা এখনো প্রশাসনের কাছে কোনো ধরনের অভিযোগ জানায়নি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৫ ফেব্র“য়ারি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের ১৯জন এবং পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের একই বর্ষের ১জন শিক্ষার্থী এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত। এদের মধ্যে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শাহরিয়ার জামান রাহি, অদ্রি দাস, রঙ্গন, মাহমুদুল হাসান, রেদওয়ান জীম, হিমেল ও পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের রনি মারমুখি ও হিংসাত্মক ভ‚মিকায় ছিলো বলে সূত্র জানায়। এ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য প্রমাণাদি সাংবাদিকের হাতে রয়েছে।

শাবি ভিসি প্রফেসর ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের উপর জিরো টলারেন্স আরোপ করা আছে। আমরা এদের বিষয়ে খোঁজ-খবর নিচ্ছি। জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২৩:৪৫:১০