তারেক রহমানের পরিকল্পনায় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা, দাবি রাষ্ট্রপক্ষের
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা হয় তারেক রহমানের পরিকল্পনায়। সে হামলায় ব্যবহৃত আর্জেস গ্রেনেড কিনতে জঙ্গিদের তিনিই অর্থ-সহায়তা করেন। এই মামলায় এমনটাই দাবি করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। অন্যদিকে তারেক রহমানের পক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবীর দাবি, তাকে এই মামলায় জড়ানো হয়েছে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে। ১৪ বছর ধরে চলছে বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা। যদিও এরইমধ্যে তারেক রহমান,  লুৎফুজ্জামান বাবরসহ ৪৯ আসামির মৃত্যুদণ্ড চেয়ে যুক্তিতর্ক শেষ করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। এখন চলছে আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন।

সোমবার দুপুরে মামলার অন্যতম আসামি পলাতক তারেক রহমানের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করেন তার পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এ মামলায় তারেককে জড়ানো হয়েছে দাবি করে সোমবারের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেন তিনি। মঙ্গলবার আবারও যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন তিনি। খবর সময় টিভি'র।

তারেক রহমানের আইনজীবী বলেন, মুফতি হান্নানসহ অন্যান্যরা কোথাও বলেননি তারেক রহমান এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত। কোন অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি। তাই আসামীরা খালাস পাবেন।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, হামলার পরিকল্পনা, বিস্ফোরক সরবরাহ থেকে শুরু করে সবশেষ হামলার আলামত নষ্টসহ সবকিছুই হয়েছে তারেক রহমানের সম্পৃক্ততায়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, হাওয়া ভবনে বসে এই মামলার অনেক আসামীর সঙ্গে বৈঠক করে তাদের সব ধরনের প্রশাসনিক সহায়তা দিয়েছেন তারেক রহমান। আর্জেস গ্রেনেড সরবরাহ করেছেন যাতে সহজেই হামলা করানো যায়। হামলার পরবর্তী সময়ে নির্বিঘ্নে নিরাপদে ঘটনাস্থল ত্যাগ করতে পারার জন্যেও ব্যবস্থা নিয়েছেন তিনি।

আলোচিত এ মামলার ৪৯ জন আসামির মধ্যে বাবরসহ ২৩ জন আসামি কারাগারে রয়েছেন। আর তারেকসহ ১৮ জন রয়েছেন পলাতক। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামীলীগের সমাবেশে বোমা হামলায় তৎকালীন মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আইভী রহমানসহ ২২ জন নিহত হন। আহত হন দু’শতাধিক।

২২ জানুয়ারি, ২০১৮ ২৩:২৮:৩৩