গায়ে আগুন দিয়েছে স্বামী, অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় থানায় গিয়ে অভিযোগ স্ত্রীর
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
গায়ে আগুন দিয়ে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। অভিযোগ, যৌতুকের টাকা দিতে না পারার জন্য গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। অগ্নিদগ্ধ অবস্থাতেই থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করে ওই গৃহবধূ। অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে।

মধ্যগ্রামের বাবুপাড়ার বাসিন্দা সোমা সিকদারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই তার উপর টাকার জন্য চাপ দিত শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নিত্যনতুন আবদার লেগেই থাকত। সম্প্রতি একটি সোনার চেনের দাবি করা হয়। তিনি তা দিতে অস্বীকার করেন। এরপরই বাড়ে অত্যাচারের মাত্রা।

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার সোমাকে বাথরুমে নিয়ে গিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়।  জ্বলন্ত অবস্থাতেই বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন ওই গৃহবধূ। তার চিৎকারে ছুটে আসে প্রতিবেশীরা। তারাই আগুন নেভান। এরপর অগ্নিদগ্ধ অবস্থাতেই মধ্যমগ্রাম থানায় গিয়ে স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন গৃহবধূ সোমা সিকদার। অভিযুক্ত স্বামী সঞ্জয় সিকদার এবং শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গুরুতর জখম অবস্থায় বর্তমানে বারাসত হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন ওই গৃহবধূ।

 

 

 

 

 

 

 

 

২০ জানুয়ারি, ২০১৮ ১২:০৬:১৭