‘করিৎকর্মা মন্ত্রী আজ অনেকগুলো কথা বলেছে’
গোলাম মোর্তোজা
অ+ অ-প্রিন্ট
গোলাম মোর্তোজা
‘…পরীক্ষা শুরুর আগে থেকে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে দেশে ইন্টারনেট ও ফেসবুক বন্ধ রাখার ব্যাপারেও আলোচনা হয়। তবে এ ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

…পরীক্ষা সুষ্ঠু, নির্বিঘ্নে ও নকলমুক্ত পরিবেশে অনুষ্ঠানের জন্য আইন-শৃ্ঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ানো রোধ, ফেসবুকে প্রশ্ন সরবরাহকারীদের বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তার বক্তব্যের উদ্ধৃ ত অংশ খেয়াল করে দেখেন ‘প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ানো রোধ’ করবেন।’ফেসবুকে প্রশ্ন সরবারাহকারীদের বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা’ নেবেন। সে প্রশ্নপত্র ‘ফাঁসকারীদের’ বিরুদ্ধে নয়, ফাঁস হয়েছে একথা যারা বলবেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন। ফাঁস যারা করবেন তাদের বিষয়ে তার কোনো বক্তব্য নেই, যারা প্রশ্নপত্র ফেসবুকে সরবারাহ করবে তাদের বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেবে। তো এতদিন ‘তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা বস্তুটি’ কোথায় লুকিয়ে রেখেছিলেন?

‘ইন্টারনেট ও ফেসবুক’ বন্ধ রাখার মত উর্বর চিন্তাও মাথায় এসেছে!

‘ঘোড়ায় চড়িয়া মর্দ হাঁটিয়া চলিল, কিছু দূর যাইয়া মর্দ রওয়ানা হইল’- চির সত্য এসব প্রবাদের সোয়ারিরা মাঝে মধ্যে দৃশ্যমান হয়। সূত্র: ফেসবুক স্ট্যাটাস

 

০৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ২৩:১৯:৩০