১১ দম্পতির যুদ্ধ এক জান্নাতের জন্য
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
ফেনী সদর হাসপাতালের সিঁড়ির নিচে ফেলে যাওয়া দুই মাস বয়সী কাটা ঠোঁট ও ফাটা তালুর কন্যা শিশু জান্নাত নূর। সে সুস্থ আছে। তার কাটা ঠোঁট সার্জারি করা হয়েছে। অনাথ শিশু জান্নাত নূরকে দত্তক নিতে ফেনীর ১১ দম্পতি আবেদন করেছেন। ফেনীর সিভিল সার্জন ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির জানান, ফেনী সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুটির চিকিৎসাসেবায় সর্বাত্মক সহযোগীতা করে আসছে।  তিনি আরো জানান, অনাথ শিশু জান্নাত নূরকে দত্তক হিসেবে নিতে ইতোমধ্যে ফেনীর ৯ দম্পতি আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।  তবে শিশুটির পিতা-মাতা না পাওয়া গেলে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে স্বচ্ছল পরিবারের কাছে তাকে দত্তক দেওয়া হবে।

জান্নাত নূর’র কাটা ঠোঁট অপারেশনের জন্য গত ২৫ ডিসেম্বর ঢাকা নেওয়া হয়।  ঢাকা কেয়ার হাসপাতালে স্মাইল ট্রেন প্লাস্টিক সার্জন অধ্যাপক ডা. বি কে দাস (বিজয়) তার অপারেশন করেন।  তিনি জানান, জান্নাত নূরের ৯ মাস বয়স হলে ফাটা তালুর অপারেশন করা হবে। পর্যায়ক্রমে শিশুটি পূর্ণাঙ্গ সুস্থ হয়ে উঠতে আরো কয়েকটি অপারেশনের প্রয়োজন হতে পারে।  তবে শিশু জান্নাত নূর এখন পর্যন্ত সম্পূর্ণ সুস্থ আছে।  এব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা করে সামাজিক প্রতিষ্ঠান স্মইল ট্রেন বাংলাদেশ। 

গত ২১ ডিসেম্বর সকালে ১১টার ফেনী সদর হাসপাতালের পুরাতন ভবনের সিঁড়ির নিচে দুই মাস বয়সী এক শিশুকে দেখতে পেয়ে উপস্থিত লোকজন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে খবর দেয়।  পরে ওয়ার্ড মাস্টার শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালের ৪১০ নম্বর কেবিনে রাখা হয়। অনাথ ও পরিত্যক্ত শিশু হওয়ায় তার নাম রাখা হয় জান্নাত নূর।  শিশুটি জন্মগতভাবে ঠোঁট কাটা ও তালু ফাটা।  ধারণা করা হচ্ছে এ কারণেই শিশুটিকে তার স্বজনরা ফেলে রেখে গেছে। 

 

 

 

০৯ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৩:০১:৩৮