ঢাকায় ৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টি, জলাবদ্ধতায় নাকাল মানুষ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপের কারণে গতকাল শুক্রবার থেকে ঢাকাসহ সারা দেশে টানা ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিগত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। দুই দিন ধরেই থেমে থেমে বৃষ্টি। ফলে আজ শনিবার সকালেও চরম দুর্ভোগে পড়েছেন রাজধানীবাসী। এতে বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির কারণে অফিসগামী লোকজন ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা পড়েছেন বিপাকে। বৃষ্টিতে অনেকে ঘর থেকে বের হতে পারেননি। আবহাওয়ার অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন (০৩) নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা যাচ্ছে।

একই সঙ্গে মাছধরা ট্রলার ও নৌকাসমূহকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

আবহাওয়ার সবশেষে আপডেটে বলা হয়েছ, পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি উত্তরদিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরো উত্তর/উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ু চাপের তারতম্য আধিক্য বিরাজ করছে। ফলে গভীর সঞ্চালণশীল মেঘমালা তৈরি অব্যাহত রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. শাহিনুল ইসলাম জানান, বৃষ্টিপাত ধীরে ধীরে কমে আসতে পারে।

এতে আরও বলা হয়, নিম্নচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ১-২ ফুট অধিক উচ্চতার বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

এজন্য উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

২১ অক্টোবর, ২০১৭ ১০:০৫:৪৯