আশ্রয় নেয়া সব রোহিঙ্গাকেই ফেরত নিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম
অ+ অ-প্রিন্ট
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্মম নির্যাতন হচ্ছে। তাদের ঘর-বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। নারী-বৃদ্ধ-শিশুদের গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে। প্রাণভয়ে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে ছুটে আসছে। তবে তাদের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে। তাদের নাগরিকত্ব ফিরিয়ে দিতে হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার রাতে সংসদ অধিবেশনে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা মানবিক কারণে তাদের আশ্রয় দিচ্ছি। কিন্তু এতগুলো মানুষকে আশ্রয় দেওয়া আমাদের জন্য কঠিন। এরা তো মানুষ। তাই আমরা এদের আশ্রয় দিয়েছি মানবিক কারণে। আমরা চাই এরা যেন নিজ ভূমিতে ফিরে যায়। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া সব রোহিঙ্গাকেই মিয়ানমারকে ফেরত নিতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা কোনো দেশের সাথেই বৈরী সম্পর্ক চাই না। আমরা সবার সাথে বন্ধুত্ব নিয়েই থাকতে চাই। আমরা মানুষকে মানুষ হিসেবে দেখতে চাই। আমরাতো অমানুষ হতে পারি না। আমরা মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি।  তাদের জন্য নিরাপদ ব্যবস্থা তৈরি করে দিতে হবে।

মিয়ানমার সরকারকে তিনি বলেন, এ মানুষগুলো শত শত বছর ধরে সেখানে বসবাস করছে। কিন্তু হঠাৎ তাদের বিতাড়িত করা হচ্ছে। তাদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে। এর ফল কি হবে তা কি তারা চিন্তা করছে? অবশ্যই মিয়ানমারকে তাদের নাগরিকত্ব ফেরত দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুসলিম দেশগুলো ঐক্যবদ্ধ হলে মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাসহ বিশ্বের মুসলিমদের ওপর নির্যাতন করতে পারত না।

বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করা হচ্ছে। যেভাবে সমুদ্র উপকূলে আয়নাল কুর্দির লাশ পাওয়া গিয়েছিল সেভাবে নাফ নদীতে এখন রাখাইন মুসলিম শিশুদের লাশ পাওয়া যাচ্ছে।

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২৩:১৩:০০