বাবা রাম রহিমের ডেরা'য় তল্লাশি, মিলেছে ধর্ষণ কক্ষ
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ভারতে ধর্ষক বাবা রাম রহিম সিংয়ের সাজা ঘোষণা হয়েছে। কিন্তু ডেরা সচ সৌদার অন্দরে কী আছে, তা এখনও পরিষ্কার নয়৷ আজ দেশটির আদালতের নির্দেশে রাম রহিমের ডেরায় তল্লাশি শুরু করে পুলিশ৷পুলিশের সঙ্গে সেখানে যায় ৫০ জন ভিডিওগ্রাফার ও ১২ জন তালার মিস্ত্রি৷ লুকোনো পথের খোঁজ করার জন্য খনন করার মেশিনও নেওয়া হয়৷

তল্লাশি শুরুর ২ ঘণ্টা পর নগদ টাকার পাশাপাশি সেখান থেকে উদ্ধার হয় প্লাস্টিকের টাকা, ব্যান হয়ে যাওয়া মুদ্রা, হার্ড ডিস্ক ও কম্পিউটার৷ সেগুলি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে৷ ২টি ঘর সিল করে দেওয়া হয়েছে৷ জানা গেছে ডেরার হেডকোয়ার্টার প্রায় ৮০০ একর এলাকা জুড়ে অবস্থিত৷ সম্পূর্ণ জায়গাতেই আজ তল্লাশি চালানো হবে৷ এদিকে আদালতের নির্দেশে সতর্ক আছে বোম স্কোয়্যাড, কমান্ডো, অ্যাম্বুল্যান্স ও দমকল বাহিনী৷ 

নিজের 'রকস্টার' লাইফস্টাইলের জন্য বিখ্যাত ছিলেন ধর্ষক বাবা৷ তাঁর “ডেরা”-ও তেমনভাবেই তৈরি৷ তার এলাকার মধ্যে রয়েছে আইফেল টাওয়ার, তাজমহল, ডিজনি ওয়ার্ল্ডের রেপ্লিকা৷ আছে সেভেন স্টার রিসোর্ট “এমএসজি রিসোর্ট”৷ “ম্যাসেঞ্জার অফ গড”-এর বড় আকারের পোস্টার রয়েছে ডেরার সর্বত্র৷ এছাড়া আছে আন্তর্জাতিক মানের স্কুল, দোকান, হাসপাতাল, স্টেডিয়াম, বাড়ি ও সিনেমা দেখার জন্য থিয়েটার৷

'বাবা'-র ডেরায় একটি গোলাপি বাড়ি আছে৷ বাড়ির নাম “গুফা” (গুহা)৷ এই বাড়িতেই ধর্ষক বাবা তার ধর্ষণকাণ্ড চালাত৷ এই জায়গাটিতে এখনও পর্যন্ত তল্লাশি নেওয়া হয়নি৷ পুলিশ চিফ বিএস সন্ধু জানিয়েছেন, “ডেরার এলাকা খুব বড়৷ সম্পূর্ণ জায়গায় তল্লাশি চালাতে অনেকটা সময় লেগে যাবে৷” ডেরার কাছাকাছি অনেক চেকপোস্ট বসানো হয়েছে৷ প্রতি জায়গায় পুলিশের পাশাপাশি মোতায়েন রয়েছে আধা সামরিকবাহিনী৷ এছাড়া আছে ৪০ সোয়াত কম্যান্ডো, কেন্দ্রীয় বাহিনী ও ডগ স্কোয়্যাড৷

২৫ অগস্ট ধর্ষণের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয় রাম রহিম সিং৷ তারপর সিরসায় অশান্তি ছড়িয়ে পড়ে৷ ঘটনায় ৩৮ জনের মৃত্যু হয়৷ তারপর থেকে হরিয়ানার ডেরায় ১০০টি নামচর্চা ঘর বা কনভেনশন হলে তল্লাশি চলে৷ পুলিশ সূত্রে খবর সেখান থেকে অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে৷ ডেরার মুখপাত্র বিপাসনা ইনসান জানিয়েছেন, ডেরা সবসময় আইন মেনে চলে৷ আমরা অনুগামীদের শান্তি রক্ষা করার অনুরোধ জানাচ্ছি৷  সূত্র: কলকাতা২৪

 

 

 

 

 

০৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২৩:২৩:৫১