কেমন আছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি রহমান বিশ্বাস
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
সাবেক রাষ্ট্রপতি রহমান বিশ্বাস
সাবেক রাষ্ট্রপতি আবদুর রহমান বিশ্বাসের শরীরটা ভালো যাচ্ছে না। ৯০ পেরিয়েছে বয়স, নানা রোগ বাসা বেঁধেছে দেহে। আগে প্রতি শুক্রবার জুমার নামাজ আদায় করতে মসজিদে যেতেন, এখন আর শক্তিতে কুলোয় না। তাই বনানীর বাড়িতেই সময় কাটছে তার। তিনি কারও ফোনও রিসিভ করেন না। পরিবারের কারও সঙ্গেও তেমন কথাবার্তা বলেন না। তার ষষ্ঠ সন্তান অ্যাডভোকেট জামিলুর রহমান শিবলী বিশ্বাসের সঙ্গে গতকাল মুঠোফোনে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়। শিবলী বিশ্বাস বলেন, ‘ডাক্তারি চেকআপের জন্য আব্বাকে মাঝেমধ্যে বাইরে নিয়ে যেতে হয়। এমনিতে তিনি বাইরে বের হতে পারেন না।’   খবর বাংলাদেশ প্রতিদিন'র।

বিশ্বাস পরিবারের কেউ রাজনীতিতে আছেন কি না, কিংবা আগামীতে থাকবেন কি না- এমন প্রশ্নে শিবলী বিশ্বাস বলেন, ‘আমরা এখন রাজনীতিতে নেই। ভবিষ্যতে থাকব কি না, তা সময়ই বলে দেবে।’ সূত্র জানায়, আবদুর রহমান বিশ্বাস মুঠোফোন ব্যবহার করেন না। মিডিয়া কোনো কোনো সময় তার প্রতিক্রিয়া জানতে চায়। কিন্তু সাবেক রাষ্ট্রপতি মিডিয়ায় বক্তব্য দিতে আগ্রহী নন। ঝুটঝামেলামুক্ত থাকতে চান তিনি। পারিবারিক ঘনিষ্ঠজন ছাড়া অপরিচিত কারও সঙ্গে যোগাযোগ করছেন না তিনি। ব্যক্তি প্রয়োজনে তার সঙ্গে কেউ যোগাযোগও করতে পারছেন না। নিজ গ্রাম বরিশাল সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নের হবিনগরের মানুষ ছাড়া কাউকে সাক্ষাৎও দেন না তিনি। শায়েস্তাবাদে জনসেবামূলক একটি ফাউন্ডেশন আছে তার। প্রতিষ্ঠানটি গরিব ছাত্রদের সহায়তা দেয়। আগে রাজধানীর গুলশান-২ নম্বরে ভাড়া থাকতেন। কয়েক মাস আগে বনানীতে নিজের বাড়িতে উঠেছেন। পত্রিকা, বই পড়ে আর কোরআন শরিফ তিলাওয়াত করে দিন কাটছে। আবদুর রহমান বিশ্বাসের জন্ম ১৯২৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর বরিশাল সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ ও এলএলবি পাস করেন। ষাটের দশকে কিছু দিন বাবুগঞ্জ পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে বরিশালে আইন পেশায় জড়িয়ে পড়েন। ফিল্ড মার্শাল আইয়ুব খানের শাসনামলে মুসলিম লীগে যুক্ত হন এবং ১৯৬২ সালে পূর্ব পাকিস্তান আইন পরিষদের সদস্য (এমপিএ) নির্বাচিত হন আবদুর রহমান বিশ্বাস। ১৯৬৭ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নেন।

১৪ জুন, ২০১৫ ২২:০৯:০০