স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় শোক দিবস পালিত
স্পেন থেকে জুবাইদুল হক
অ+ অ-প্রিন্ট
স্পেনে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস। স্থানীয় সময় বুধবার সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার মাধ্যমে শোক দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। সকাল ১১টায় দূতাবাস হলরুমে এ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার। এসময় বঙ্গবন্ধুর প্রতীকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাষ্ট্রদূত।

মিনিস্টার ও দূতালয় প্রধান এম হারুন আল রাশিদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শুনান কমার্সিয়াল কাউন্সিলর মোহাম্মদ নাভিদ শাফিউল্লাহ ও প্রথম সচিব (শ্রম) মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার বলেন, আজকে কেবল শোকাভিভূত হওয়ার দিন নয়; শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করার দিন। ৭১ এবং ৭৫ এর সেই সহোদররা, উত্তরসূরীরা এখনো বাংলাদেশে আছে। যার দরুণ এখনো আমরা জঙ্গিবাদ দেখি, ভালো আন্দোলনকে বিপদগামী করার অপচেষ্টা দেখি। রাষ্ট্রদূত সেইসব ষড়যন্ত্রকারীদের ব্যাপারে প্রবাসীদেরকেও সচেতন থাকার আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে শক্তি ধারণ করে আমরা যেন সামনে এগিয়ে যেতে পারি, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় পরিণত করতে পারি- সেই প্রত্যয় আমাদের নিতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে আমাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে হবে।

আলোচনা সভায় দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী, আওয়ামী লীগ স্পেন শাখার নেতৃবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি উপস্থিত ছিলেন। সভায় ১৫ আগষ্ঠে বঙ্গবন্ধুসহ নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন ও তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর খুনীদের অন্যতম স্পেনে অবস্থানরত শরিফুল হক ডালিমকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ ও স্পেন সরকারের মধ্যে কোন সমঝোতা কিংবা কোন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে কি না, আলোচনা সভা শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার কোন মন্তব্য না করলেও দূতালয় প্রধান এম হারুন আল রাশিদ বলেন, দূতাবাস এ ব্যাপারে অবগত আছে এবং এ ব্যাপারে অর্পিত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে।

 

১৬ আগস্ট, ২০১৮ ০৬:১২:১৩