মালয়েশিয়ায় বর্ষবরণে ব্যাপক প্রস্তুতি
কামরুল ইসলাম, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
অ+ অ-প্রিন্ট
"এসো হে বৈশাখ এসো এসো" বাংলা নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে গাওয়া এই গানটি এখন আর শুধু দেশেই সীমাবদ্ধ নেই। দেশ মাতৃকার উন্নয়নের অংশীদার প্রবাসীদের কল্যাণে তা আজ বাজে সাত সমুদ্র তের নদীর ওপারও। কয়েকদিন পরেই আসছে বাঙালীর প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ ১৪২৫।

হোকনা দূর প্রবাসে, তাই বলে কি নিজের সংস্কৃতি ভুলে থাকা থাকা যায়?মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত প্রবাসীদের বর্ষবরণের প্রস্তুতি দেখে তাই ই বুঝা যাচ্ছে । ১৪২৪ বাংলাকে বিদায় জানিয়ে ১৪২৫ কে স্বাগত জানাতে পর্যটন নগরী মালয়েশিয়ায় প্রতিবারের ন্যায় বাঙ্গালী কমিউনিটির মধ্যে চলছে তাই বর্ষবরণের ব্যাপক প্রস্তুতি। বাঙালির প্রাণের এই উৎসব মূলত বাঙালির ইতিহাস-ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও জাতিসত্তার প্রতীকী উপস্থাপনা।

প্রবাসীদের আয়োজনে মালয়েশিয়ায় এবারও বর্ষবরণের অনুষ্ঠান আয়োজনে প্রস্তুত বেশ কয়েকটি সংগঠন। সময়ের পরিক্রমায় গত কয়েক বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বৃহৎ ও সার্বজনীন এক উৎসবে পরিণত হচ্ছে এই দিবসটি।অন্যান্য বারের চেয়ে এবার আরো সাড়ম্বরে নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও  জানান  বিভিন্ন সংগঠনের কর্তা ব্যক্তিরা। 

এবার বাংলা নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ এসোসিয়েশন(এমবিএ),বাংলাদেশ স্টুডেন্ট ইউনিয়ন মালয়েশিয়া,আমরা প্রবাসী যুব সংঘ মালয়েশিয়া সহ বেশ কয়েকটি সংগঠন।তাছাড়া বাংলাদেশী মালিকানাধীন রেস্টুরেন্ট গুলোতে পান্তা ইলিশ সহ হরেক রকম খাবারের পসরা সাজানো থাকে প্রতিবারই ।এবারও প্রস্তুতি চলছে পুরোদমে ।

এদিকে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম(এমবিএ)র বৈশাখী আয়োজনে থাকছে পান্তা ইলিশ ভোজন এবং দিনভর বাউল গানের আসর। বাঙালির নিজস্ব উৎসবের একটি হচ্ছে পহেলা বৈশাখ। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই দিনটির মাধ্যমে স্বাগত জানাবে নতুন বছরকে। বাংলাদেশের কৃষ্টি কালচার, ইতিহাস ও ঐতিহ্য এ অনুষ্ঠানে তুলে ধরা হবে বলে জানান আয়োজকরা। থাকছে র‍্যাফেল ড্র সহ আরো নানা আয়োজন ।

এছাড়া বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক পহেলা বৈশাখ পালনেও চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি।গত কয়েকদিন ধরেই চলছে তাই নাচ- গান ও আবৃত্তির রিহার্সেল। 

প্রকৃতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে শিখিয়েছে যে বৈশাখ, পুরনোকে পেছনে ফেলে নতুনকে বরণ করে নিতে বছর শেষে আবার আসছে সেই বৈশাখ।১৪২৫ বাংলা বছরের প্রথম দিন। বৈশাখের প্রথম দিনটিকে ঘিরে গান-বাদ্য আর উৎসব আমেজে মেতে ওঠা বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য।তাই রাত-দিন নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মালয়েশিয়া বিভিন্ন কলেজ,ইউনিভার্সিটির বাংলাদেশী শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সংগঠন গুলো । নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে উন্মুখ মালয়েশিয়ায় অবস্হানরত বাংলাদেশী প্রবাসী অঙ্গণ। তাইতো অনবদ্য শৈলীর আমন্ত্রণপত্র, কিংবা আবহমান গ্রাম বাংলার চিরায়ত দৃশ্যর দাওয়াতপত্র তৈরির কাজও সেরে ফেলেছে অনেক সংগঠন।পিছিয়ে নেই মালয়েশিয়া অবস্হারত প্রবাসী তরুনরাও। বৈশাখের আগমনে তাই নতুন পাঞ্জাবী সংগ্রহ করতে ভুলেননি অনেকে। আবার কেউ কেউ শেষ সময়ে দেশ থেকে প্রিয়জনের মাধ্যমে সংগ্রহের চেষ্টায়।

 

 

০৮ এপ্রিল, ২০১৮ ০৩:৪২:৪৯