মোদীর 'নোট' ক্যারিশমায় দিশেহারা জঙ্গলমহলের সাধারণ মানুষ
বচ্চন গিরি •ঝাড়গ্রাম ও রাইমা সুলতানা •দিল্লী
অ+ অ-প্রিন্ট
'গোলমাল হ্যা ভায় সব গোলমাল হ্যা'। কেন্দ্রিয় সরকারের নোট বাতিল পরিকল্পনায় দেশ জুড়ে গোলমাল শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং মোদী ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের যে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তাতে গোটা দেশে চরম বিড়ম্বনার সৃষ্টি হয়েছে। হিসেব বলছে এই মহুর্তে সাধারণ মানুষের হাতে যে পরিমাণ টাকা আছে তা বাতিল করতে গেলে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে 'লেজে গোবরে' হতে হবে। কারণ সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে শিল্পপতি কমবেশি সকলের কাছেই ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট প্রচুর পরিমানে রয়েছে। সেগুলি বাতিল করে নতুন ভাবে টাকা বাজারে আনতে গেলে  কেন্দ্রিয় সরকারের বেঁধে দেওয়া সময় সীমার মধ্যে আবার দেশের অর্থনৈতিক বাজার কে চাঙ্গা করা কোনও মতেই সম্ভব নয়। নরেন্দ্র মোদীর নোট ক্যারিশমা সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর থেকেই সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে আমীর ব্যবসায়ী সকলেই চরম অসস্তিতে পড়েন। জঙ্গলমহলের মানুষদের মধ্যেও বিড়ম্বনা সৃষ্টি হয়েছে। দোকান, বাজার, তেল পাম্প, রেশন দোকান থেকে শুরু করে বাস, রেলের টিকিট কাউন্টার, টোলপ্লাজা, শপিংমলগুলোতে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট নিতে অস্বীকার করছে। যার ফলস্বরূপ দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে জনজীবনে। বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সহ বিভিন্ন জেলায় এখন চলছে মোদী ম্যাজিক। দোকানে দোকানে বড় বড় করে পোষ্টারে লেখা "৫০০ ও ১০০০ নোট দিয়া লজ্জা দেবেন না।" বুধবারও দিনভর দেশ জুড়ে চললো নোট ঝাড়াই বাছাই পর্ব। তবে মোদীর এই নোট ক্যারিশমার পিছনে আলাদা কিছু রহস্য লুকিয়ে আছে বলেই মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশারদরা। কে.ডি কলেজ অব কমার্সের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক তরুন কুমার বন্ধ্যোপাধ্যায় বলেন "প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের তিনটি দিক রয়েছে বলেই প্রাথমিক ভাবে মনে হয়।" কি কি সেই তিনটি দিক? তরুন বাবুর মতে এক কালোবাজারি রুখতে সরকারের এই সিদ্ধান্ত, দুই দেশে জঙ্গীদের আনাগোনা ও জঙ্গীদের দেশ থেকে তাড়াতে এই সিদ্ধান্ত হতে পারে, তিন দেশের অর্থনৈতিক পারদের সমতা বজায় রাখতে সরকারের এহেন সিদ্ধান্ত হতে পারে। কিন্তুু রাজনৈতিক মহল মোদী সিদ্ধান্ত কিছুতেই মানতে রাজী নয়। সি.পি.আই.এম, কংগ্রেস থেকে শুরু করে পশ্চিমবঙ্গের শাসকদল তৃণমূল সকলেই একসুরে কেন্দ্রীয় সরকারের নোট ক্যারিশমার বিরোধীতা করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্ধ্যোপাধ্যায় সরাসরি নরেন্দ্র মোদী সরকারকে আক্রমন করে বলেন, "সাধারণ মানুষের সঙ্গে ছলনা করছে কেন্দ্র সরকার।" তবে বিশেষঙ্গ মহলের ধারণা মোদী ক্যারিশমায় লাভবান হবে সাধারণ মানুষই। কতোটা উপকৃত হবেন সাধারণ মানুষ? নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এ রাজ্যের অর্থ দপ্তরের এক আধিকারিক বলেন "মোদী সরকারের নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত আদপে কালো টাকার হিসেব নিকেশের খসড়া কৌশল মাত্র। এই সিদ্ধান্ত বলবৎ হওয়ায় সরকারের ঘরে অসাধু ব্যবসায়ীদের কালো টাকার হিসেব চলে আসবে যার ফলে অর্থনৈতিক দাঁড়িপাল্লা সমান হবে।" তবে যতোই মোদী সরকার নোট কৌশল বলবৎ করুকনা কেন বিতর্ক যে তাদের পিছু ছাড়ছে না তা অবশ্য বলার অপেক্খা রাখেনা। সব মিলিয়ে মোদীর নোট ক্যারিশমা জ্বরে ভুগছে গোটা দেশ যার ধরাছোঁয়া  মাপকযন্ত্রে পড়বে না বলেই মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা।

 

০৯ নভেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৩:৫২