কলম্বাসে তপন চৌধুরী এবং দিপ্তী জাহানের অনবদ্য পরিবেশনা
নাসরিন শাহানা চাঁদনী, কলাম্বাস, ওহাইও
অ+ অ-প্রিন্ট
আমেরিকার ওহাইয় প্রদেশের রাজধানী শহর কলাম্বাস এর বাঙ্গালীদের জন্য গত শনিবার এর সন্ধ্যা টি ছিল সুর ও বাণীর। দশ ই সেপ্টেম্বর, শনিবার এখানে উপস্থিত ছিলেন মিলিয়ন বাঙ্গালীর মন জয় করা প্রথিতযশা শিল্পী তপন চৌধুরী এবং কানাডা প্রবাসী নতুন প্রজন্মের শিল্পী দীপ্তি জাহান। 

সন্ধ্যা সাত টা থেকে শুরু করে রাত দশটা অবধি দর্শক দের সুরের মূর্ছনায় আবিষ্ট করে রাখেন এই দু গুণী শিল্পী। আমি বাংলায় গান গাই গান টি গেয়ে অনুষ্ঠানের সুচনা করেন দীপ্তি জাহান। তারপর একে একে আধুনিক, পুরানো দিনের বাংলা গান এবং হিন্দি গান পরিবেশন করে দর্শক মাতিয়ে রাখেন দীপ্তি জাহান। তপন চৌধুরী তার সুরের যাদুতে বরাবরের মত বশ করে রাখেন হল ভর্তি দর্শককে। তিন দশকের বেশী সময় ধরে বাংলা গানে যে তপন চৌধুরীর সহজ বিচরন, যার গাওয়া শত শত গানের প্রায় সবই জনপ্রিয়, তার জন্য এই হল ভর্তি মন্ত্র মুগ্ধ দর্শক একেবারেই আকাঙ্ক্ষিত। কলেজের করিডোরে দেখেছি, পলাশ ফুটেছে, ও পাগল মন রে, আমার গল্প শুনে কারো চোখে, ফরেস্ট হিলের দুপুরে, হারানো দিন কে আমি ফিরে যদি পাই, এই মুখরিত জীবনের চলার পথে গান গুলি একে একে গাইতে শুরু করেন। প্রতিটি গান এর মাঝেই দর্শক তাদের অনুরোধের গান কাগজে লিখে তার হাতে পৌঁছে দেন। বিনয়ী এই শিল্পী দর্শক দের নিরাশ করেন নি। সকলের অনুরোধ ই রেখেছেন, এমনকি সময়ের স্বল্পতার কারনে কিছু কিছু গান চার লাইন করে হলেও শুনিয়েছেন। দর্শক সুরে বেসুরে গলা ছেড়ে তপন চৌধুরী র সাথে গলা মিলিয়েছেন, ফিরে গেছেন আশির দশকের সেই স্বর্ণালী সময়ে। শিল্পীদ্বয়ের অন্যতম আকর্ষণ ছিল তাদের দর্শকের প্রতি এবং পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, সেই শ্রদ্ধার জায়গা থেকেই তারা দেশের আরেক প্রথিতযশা সঙ্গীত শিল্পী লাকি আখন্দের সুস্থতার জন্য সকলের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন এবং লাকী আখন্দের সৃষ্টি ‘এই নীল মনিহার’ গান টি এক সাথে করেন। অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল দ্বৈত সঙ্গীত। দুজনের কন্ঠে ‘তুমি আমার প্রথম সকাল’ বেজে উঠবার সাথে সাথে আপ্লুত দর্শক করতালির মাধ্যমে তাদের আরও আরও অনুপ্রানিত করেন। চারজন বাঙালি তরুন, শিশির(গিটার), সামী (পিয়ানো), সোমনাথ (তবলা) এবং ইশফাক (পারকাসন) বাজনায় এই দুই শিল্পীকে সহোযগীতা করেছেন। সব মিলিয়ে সুর ও বানীর মূর্ছনায় কলাম্বাস এর বাঙ্গালীদের কেটেছে এক সুন্দর সন্ধ্যা।

অনুষ্ঠানের সার্বিক আয়োজন এবং তত্ত্বাবধানে ছিলেন লেগাটো ম্যানেজমেন্ট। লেগাটো ম্যানেজমেন্ট এর কর্ণধার সঙ্গীত প্রেমী মিসেস সিলভি ইসলাম এবং ইশফাকুল ইসলাম শহরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আয়োজনের সাথে সক্রিয় ভাবে জড়িত। লেগাটো ম্যানেজমেন্ট এর আমন্ত্রনে শিল্পী দীপ্তি জাহান এর এটি ছিল দ্বিতীয় বারের মত কলাম্বাস সফর। বিনয়ী এই শিল্পী দু, দু-বার ই দর্শক মন জয় করতে সমর্থ হয়েছেন। 

অনুষ্ঠান এর উপস্থাপনায় ছিল কলাম্বাস এ বেড়ে উঠা এক বাংলাদেশী কিশোরী রাইয়ান এবং নাসরিন শাহানা চাঁদনী। অনুষ্ঠান টির স্থির চিত্রে ছিলেন খোকন জামান। 

 

০৫ অক্টোবর, ২০১৬ ১২:৩৪:০৬