ভালবাসা! স্ত্রীর পায়ে একটুও কাদা লাগতে দিলেন না প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
কাদা মাখা পথ। সেখানে হাঁটলে স্ত্রীর পায়ে কাদা লাগতে পারে। সেটা নিয়ে হতে দিতে চান না। তাই নিজের পিঠে চাপিয়ে স্ত্রীকে কাদা মাখা পথ পার করলেন তিনি। এমন ঘটনার পর অনেকেই তাঁকে স্ত্রৈণ বলতে পারেন। তবে তাতে তাঁর কিছুই যায় আসে না। এমন একখানা কাণ্ড করার পর তিনি প্রচণ্ড তৃপ্ত। ভূটানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে স্ত্রীর প্রতি ভালবাসার আলাদা একটা আবেগ তৈরি করে ফেলেছেন। আর তাতে তিনি বেশ গর্বিত।

নিজের টুইটার পেজে তিনি একটা ছবি পোস্ট করেছিলেন তাতে দেখা যাচ্ছে, স্ত্রী তাশি দোমাকে পিঠে চাপিয়ে কাদামাখা রাস্তা পার করছেন শেরিং তোবগে। তার এমন ছবি নিমেষে ভাইরাল হয়েছে। অনেকেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর এমন কাজের প্রশংসা করেছেন। প্রত্যেকেরই দাবি, নিজের স্ত্রীর প্রতি একজন আদর্শ স্বামীর যে আবেগ ও ভালবাসা জাহির করাটা প্রয়োজন, তিনি সেটাই করেছেন।

শেরিং তোবগে আবার স্যর ওয়াল্টার-এর প্রসঙ্গ তুলেছেন। ছবির ক্যাপশনে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, ''আমি হয়তো স্যার ওয়াল্টার র‍্যালির মতো করিতকর্মা নই। কিন্তু স্ত্রীর পা পরিষ্কার রাখার জন্য এই মুহুর্তে একজন পুরুষের যা করা দরকার, আমি তাই করেছি।'' প্রসঙ্গত, ইংরেজ কবি স্যার ওয়াল্টার একবার রানি এলিজাবেথের সামনে নিজের আলখাল্লা বিছিয়ে দিয়েছিলেন। যাতে রানির পায়ে কাদা না লাগে! যদিও এই ঘটন কবে, কোথায় ঘটেছিল তা জানা যায় না। এমনকী এই ঘটনার সত্যতা নিয়েও দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে। কিন্তু অনেকেই ওয়াল্টারের সঙ্গে তাঁকে তুলনা করতে শুরু করেছেন।

৫২ বছর বয়সী তোবগে ২০১৩ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। বর্তমানে তিনি ভূটানের পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) প্রেসিডেন্ট। 

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:১৬:৩৭