পর্ণো ছবিতে কাজ করতে ইসলাম ছাড়ল আফগান তরুণী!
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
পর্ণো ছবিতে কাজ করতে এসে এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে একটাই নাম, ইয়াসমিনা আলি৷ spectator.us সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এই আফগানি তরুণী যেসব কথা বলেছেন তার জন্যই চর্চায় ইয়াসমিনা৷ ওই সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত তার বক্তব্য অনুযায়ী, যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে তাঁর জন্ম৷ সেসময় দেশের বেশিরভাগ স্থানেই তালিবানি সন্ত্রাস কায়েম ছিল৷ যদিও পরে তিনি ৯বছর বয়সে ব্রিটেনে চলে আসেন৷ বর্তমানে ইয়াসমিনা পর্ণো ছবির দুনিয়ায় খুবই পরিচিত এক নাম৷

ইসলাম ধর্মকে কটাক্ষ করে ইয়াসমিনা জানান, ইসলাম এবং তার কালো অধ্যায়ের বিষয়ে তিনি অনেক কিছু জানেন৷ পোশাকের ওপর কড়াকড়ি রয়েছে, নিয়ম ভঙ্গ করলে শারীরিক দণ্ডও দেওয়া হয়৷ জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়৷ সবথেকে খারাপ পরিস্থিতিতে ইসলামের ভূমিকা নিয়েও মুখ খুলেছেন তিনি৷

ইয়াসমিন আলি জানান, তাঁর বাবা-মা তাকে জানিয়েছেন,যে কোনও কিছুর থেকে গুরুত্বপূর্ণ ইসলাম৷ এমনকি মা-বাবা এবং সন্তানের মধ্যে ভালোবাসার থেকেও তার মূল্য অনেক বেশি৷ এই ধর্ম অনুযায়ী তার বাবা-মা তাকে কি পোসাক পরা উচিত সেই নির্দেশ দিতেন৷ আলি জানান, নরকে যাওয়ার ভয়ের মধ্যেই বড় হয়েছেন তিনি৷

প্রতিটি আধুনিক বিষয়কে ঘৃণার চোখে দেখতে শিখিয়েছে তার অভিভাবক এমনটাই বলেন তিনি৷ সভ্য এবং ধর্মনিরপেক্ষ পরিস্থিতিকেও ঘৃণার চোখে দেখাতে শেখান৷ আর তার এই বক্তব্য ইতিমধ্যেই তাকে সংবাদ শিরোনামে তুলে এনেছে৷ সূত্র: কলকাতা২৪

১২ আগস্ট, ২০১৮ ০৫:৫৩:৫৮