ফেসবুকে নারী ভেবে পুলিশের প্রেম, অতঃপর…
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
ফেসবুকে নারী পরিচয়ধারী আয়নারের সঙ্গে পরিচয় হয় ভারতের চেন্নাইয়ের ইন্নোর পুলিশ স্টেশনের কনস্টেবল কন্নন কুমারের। এরপর চ্যাট-ভয়েস চ্যাট। একপর্যায়ে তার মনে হয় যে তিনি মানুষটিকে ভালোবেসে ফেলেছেন।

এমনকি আয়নারকে বিশাল অংকের টাকাও দেন ৩২ বছর বয়সী কনস্টেবল। নবান্নের সময় তিনি গ্রামের বাড়িতে যাবার জন্য ১০ দিনের ছুটি নেন। তখন তিনি তার অনলাইন প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করবেন বলেও জানান সহকর্মীদের।

তবে আয়নার দেখা করার বিষয়টি বারবার এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করেন। আর এতেই সন্দেহ বাড়তে থাকে পুলিশ কনস্টেবলের। প্রতারিত হবার বিষয়টি বুঝতে পারেন তিনি। তার মন ভেঙে যায় এবং তিনি বিষণ্ণতায় ভুগতে থাকেন। এমনকি তিনি বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টাও করেন।

বিষ খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া বন্ধুকে দেখতে আসেন বিজয়কুমার, তেনজিং ও তামিলরসন। তখনই তারা আয়নারকে হত্যা করার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা মোতাবেক তারা বৃহস্পতিবার আয়নারকে কিডন্যাপ করে তামিলনাড়ুর বিরুধুনগরে নিয়ে হত্যা করেন।

পরে কন্ননের তিন বন্ধু পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন এবং হত্যার কথা স্বীকার করেন। তারা জানান, ২২ বছর বয়সী আয়নার একজন ছাত্র ছিলেন। তিনি কন্ননের সঙ্গে ফেসবুকে মিথ্যা প্রেমের সম্পর্ক গড়েন। তবে পুলিশ এখনও কন্ননকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তাকে গ্রেপ্তার করতে একটি দল কাজ করছে।

২৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০:৪৮